default-image

আফগানিস্তান ও ইরাক থেকে আরও সেনা প্রত্যাহারের আদেশ দিতে পারেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আজ মঙ্গলবার বিবিসি অনলাইনের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা দপ্তরের কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে দেশটির গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়, দেশ দুটি থেকে আরও সেনা প্রত্যাহারের বিষয়ে ট্রাম্প আদেশ দিতে পারেন বলে আশা করছে মার্কিন সেনাবাহিনী।

মার্কিন কর্মকর্তারা বলছেন, আগামী বছরের জানুয়ারির মাঝামাঝিতে আফগানিস্তান ও ইরাক উভয় দেশ থেকে আড়াই হাজার করে সেনা কমানো হতে পারে।

বিজ্ঞাপন

বর্তমানে আফগানিস্তানে পাঁচ হাজার মার্কিন সেনা রয়েছে। অন্যদিকে ইরাকে রয়েছে তিন হাজার মার্কিন সেনা।

আগে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেছিলেন, তিনি ক্রিসমাস নাগাদ সব মার্কিন সেনা দেশে ফেরাতে চান।

সদ্য সমাপ্ত মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ট্রাম্প তাঁর ডেমোক্রেটিক প্রতিদ্বন্দ্বী জো বাইডেনের কাছে পরাজিত হয়েছেন। তবে ট্রাম্প এখন পর্যন্ত হার মানতে নারাজ।

আগামী ২০ জানুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের নতুন প্রেসিডেন্ট দায়িত্ব নেবেন। এর আগেই ট্রাম্পকে সেনা প্রত্যাহার করতে হবে। মার্কিন গণমাধ্যম বলছে, ১৫ জানুয়ারির মধ্যে ট্রাম্পকে এই কাজ শেষ করতে হবে।

আফগানিস্তান ও ইরাক থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের বিষয়ে ট্রাম্পের পরিকল্পনা নিয়ে তাঁর নিজ দলেই মতভেদ রয়েছে। রিপাবলিকানরা এই পরিকল্পনার সমালোচনা করছেন।

সিনেটের রিপাবলিকান নেতা মিচ ম্যাককনেল সতর্ক করে বলেছেন, মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের পরিকল্পনাটি জঙ্গিদের পক্ষে যাবে। তারা এ পরিকল্পনা পছন্দই করবে।

৯/১১-এর জেরে তালেবান উৎখাতে ২০০১ সালে আফগানিস্তানে হামলা চালায় যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন সামরিক জোট। অন্যদিকে প্রেসিডেন্ট সাদ্দাম হোসেনকে উৎখাতে ২০০৩ সালে ইরাকে আগ্রাসন চালায় যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন বাহিনী।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0