বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

২০১০ সাল থেকে এই ওয়ারিয়র গেমসের আয়োজন করে পেন্টাগন। মার্কিন বাহিনীর আহত ও অসুস্থদের জন্য একে গুরুত্বপূর্ণ আয়োজন হিসেবে বিবেচনা করা হয়। ২০২১ সালের এই আয়োজন হওয়ার কথা ছিল ফ্লোরিডার অরল্যান্ডোয়। কিন্তু করোনার মহামারির কারণে ওই সব খেলোয়াড় ও তাঁদের পরিবারের নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে তা বাতিল করা হয়।

প্রিন্স হ্যারি আগেও ওয়ারিয়র গেমসে যোগ দিয়েছেন। ২০১৩ সালে কলোরাডোয় যে গেমসের আয়োজন করা হয়েছিল, তাতে যোগ দিয়েছিলেন তিনি। এ ছাড়া বিভিন্ন দেশের আহত সেনাদের নিয়ে যে ইনভিকটাস গেমসের আয়োজন করা হয়, তার প্রতিষ্ঠাতাও তিনি। হ্যারি নিজেও আফগান যুদ্ধে অংশ নিয়েছিলেন।

এদিকে প্রিন্স হ্যারি ও জিল বাইডেন ছাড়াও এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী লয়েড অস্টিন। ফিশার হাউস ফাউন্ডেশনের প্রধান কেন ফিশারও এই আয়োজনে উপস্থিত থাকবেন। মার্কিন বাহিনীর যেসব সদস্য আহত হয়ে চিকিৎসাধীন, তাঁদের পরিবারগুলোর থাকার ব্যবস্থা করে থাকে ফিশার হাউস ফাউন্ডেশন।

চলিত বছরের ওয়ারিয়র গেমসে সরাসরি উপস্থিত থাকার কথা ছিল জিল বাইডেন, প্রিন্স হ্যারি, লয়েড অস্টিন ও কেন ফিশারের। কিন্তু আয়োজনটি বাতিল হওয়ায় ভার্চ্যুয়াল অনুষ্ঠানে থাকছেন তাঁরা।

যুক্তরাষ্ট্র থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন