বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

তবে ইউএসএনআই নিউজ নামের একটি ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, চলতি মাসের শুরুর দিকের এই দুর্ঘটনায় ১০ থেকে ১২ জন নাবিক আহত হয়েছেন। তাঁরা মাঝারি থেকে সামান্য আঘাত পেয়েছেন। ইউএসএনআই নিউজে নৌবাহিনীসংক্রান্ত খবরাখবর প্রকাশ করা হয়।
ওয়েবসাইটটিতে বলা হয়, সাবমেরিনটি বিতর্কিত দক্ষিণ চীন সাগরে অবস্থান করছিল। এই সাগরের অনেক অংশই নিজেদের বলে দাবি করে আসছে চীন। দেশটিকে চ্যালেঞ্জ জানাতে ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলে একাধিকবার সামরিক মহড়া চালিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

এদিকে দুর্ঘটনার কারণ তদন্ত করে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছে মার্কিন নৌবাহিনী। খতিয়ে দেখা হচ্ছে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণও। তবে সাবমেরিনটি বর্তমানে নিরাপদে আছে বলে জানিয়েছে তারা। নৌবাহিনীর ভাষ্য, সেটির পারমাণবিক যন্ত্রাংশগুলোর কোনো ক্ষতি হয়নি এবং সম্পূর্ণ সচল আছে।

ইউএসএস কানেটিকাট এই মুহূর্তে প্রশান্ত মহাসাগরে যুক্তরাষ্ট্রের গুয়াম দ্বীপে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে ইউএসএনআই নিউজ।

যুক্তরাষ্ট্র থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন