default-image

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রশাসনের কর্মকাণ্ড নিয়ে নিয়মিত সংবাদ ব্রিফিংয়ের আয়োজন করে হোয়াইট হাউস। সাংবাদিকদের প্রতিটা প্রশ্নের যথাসম্ভব জবাবও দেওয়ার চেষ্টা করেন হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি জেন সাকি। কিন্তু এই সংবাদ ব্রিফিংয়েই ছদ্মনাম ব্যবহার করে হোয়াইট হাউসকে বোকা বানিয়েছেন কে বা কারা।

হোয়াইট হাউসের কাছে থাকা তথ্য অনুযায়ী, কেসি মন্টাগু নামের একজন সাংবাদিক রয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রে, যিনি হোয়াইট হাউস নিউজ অথবা হোয়াইট হাউস শিডিউল নামের সংবাদমাধ্যমে কাজ করেন।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ইনডিপেনডেন্ট এক প্রতিবেদনে জানায়, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ পরিস্থিতির কারণে কেসি মন্টাগু হোয়াইট হাউসের সংবাদ ব্রিফিংয়ে সশরীর হাজির হতে পারেননি বলে হোয়াইট হাউসকে জানিয়েছেন। তাঁর পক্ষে নামীদামি সাংবাদিকেরা জেন সাকিকে প্রশ্ন করেছেন। হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি সেসব প্রশ্নের জবাবও দিয়েছেন গুরুত্বের সঙ্গে।

বিজ্ঞাপন

তবে কেসি মন্টাগুর গোপন তথ্য ফাঁস করে দিয়েছেন মার্কিন সংবাদমাধ্যম পলিটিকো। সংবাদমাধ্যমটির প্রতিবেদনে বলা হয়, এই নামে আসলে কেউ নেই। এটি একটি ছদ্মনাম, যা অনলাইন প্ল্যাটফর্ম রোবলক্সের গেমারদের কেউ একজন বা একাধিক ব্যবহারকারী ব্যবহার করে।

প্রশ্ন উঠতে পারে, একজন গেমার কীভাবে হোয়াইট হাউসের প্রেস ব্রিফিংয়ে নিজের নাম ঢুকিয়ে দিতে পারল? করোনাভাইরাস মহামারির কারণে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতে বাইডেন প্রশাসন সংবাদ ব্রিফিংয়ে সাংবাদিক উপস্থিতির সংখ্যা ৪৯ থেকে কমিয়ে ১৪ করেছে। তবে সুযোগ রাখা হয়েছে বাদ পড়া সাংবাদিকদের পক্ষে প্রশ্ন করার। এ ক্ষেত্রে ডিজিটালি অথবা হোয়াইট হাউস প্রতিবেদককে ই-মেইলে প্রশ্ন পাঠানো যায়। এই ফাঁকই ব্যবহার করেছে কেসি মন্টাগু নামের ছদ্মনামের ওই গেমার। শুধু তা-ই নয়, নিজেকে প্রকৃত সাংবাদিক হিসেবে প্রমাণে সে টুইটারে ও লিঙ্কডইনে ভুয়া অ্যাকাউন্টও খুলেছে বলে পলিটিকোর প্রতিবেদনে জানানো হয়।

অবশ্য হোয়াইট হাউসের সংবাদ ব্রিফিংয়ে যেসব প্রশ্ন কেসি মন্টাগু করেছে, সেগুলো বেশ গুরুগম্ভীর।

যুক্তরাষ্ট্র থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন