default-image

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জর্জিয়া অঙ্গরাজ্যে ভোট পুনর্গণনা হতে পারে।এমনটাই ঘোষণা দিয়েছেন অঙ্গরাজ্যটির সেক্রেটারি অব স্টেট। অঙ্গরাজ্যটিতে দুই প্রেসিডেন্ট প্রার্থীর প্রাপ্ত ভোটের মধ্যে ব্যবধান অত্যন্ত কম হলে আইন অনুযায়ী এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় সময় আজ শুক্রবার সকালে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত জর্জিয়ায় ডেমোক্র্যাট প্রার্থী ও সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প থেকে দেড় হাজারের কিছু বেশি ভোটের ব্যবধানে এগিয়ে রয়েছেন। অঙ্গরাজ্যটিতে মোট সম্ভাব্য ভোটের ৯৯ শতাংশ এরই মধ্যে গণনা হয়ে গেছে। ফলে সব ভোট গণনার পরও এই ব্যবধান খুব বেশি হবে না। এই অবস্থায় যেকোনো ধরনের ত্রুটি এড়াতে এ ভোট পুনর্গণনা করার পরিকল্পনা করছে জর্জিয়ার নির্বাচন কর্তৃপক্ষ।

এ বিষয়ে অঙ্গরাজ্যটির সেক্রেটারি অব স্টেট ব্র্যাড রাফেন্সবার্গার সাংবাদিকদের বলেন, পুরো প্রক্রিয়া স্বচ্ছতার সঙ্গে করা হবে, যেখানে পর্যবেক্ষকদের প্রবেশাধিকার থাকবে।

নিয়ম অনুযায়ী কোনো নির্বাচনে প্রার্থীদের প্রাপ্ত ভোটের ব্যবধান দশমিক ৫ শতাংশ পয়েন্টের কম হলে তা পুনঃগণনার সুযোগ থাকে।

জর্জিয়ার ভোট ব্যবস্থা বাস্তবায়ন বিষয়ক ব্যবস্থাপক গ্যাব্রিয়েল স্টার্লিংয়ের বরাত দিয়ে মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিবিএস নিউজ জানায়, অঙ্গরাজ্যটিতে ৪ হাজারের মতো ভোট এখনো গণনার অপেক্ষায় রয়েছে। এই ভোট গণনা স্বচ্ছতার সঙ্গে করা হবে। স্টার্লিং বলেন, ভোটকে প্রশ্নের ঊর্ধ্বে রাখতে সংশ্লিষ্ট সবকিছুর দিকে কড়া নজর রাখা জরুরি।

বিজ্ঞাপন

ভোট নিয়ে জালিয়াতি হওয়ার অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে স্টার্লিং বলেন, আমরা এ ধরনের কোনো কিছু দেখিনি। ব্যবধান অত্যন্ত কম হওয়ায় আমরা সতর্ক আছি।

জর্জিয়ার ক্লেটন কাউন্টির সর্বশেষ খবর অনুযায়ী, এই কাউন্টিতে স্থানীয় সময় সকাল পর্যন্ত গণনা হওয়া ভোটের মধ্যে বাইডেন পেয়েছেন ১ হাজার ৬০২ ও ট্রাম্প পেয়েছেন ২২৩ ভোট।

সিবিএস নিউজের প্রতিবেদনে বলা হয়, এখন পর্যন্ত বাইডেনের পক্ষে ২৫৩ ইলেকটোরাল ভোট ও ট্রাম্পের পক্ষে ২১৩ ইলেকটোরাল ভোট যাওয়া নিশ্চিত। এখনো পেনসিলভানিয়া, জর্জিয়া ও নর্থ ক্যারোলাইনার ফল যেকোনো দিকে যাবে বলে মনে করা হচ্ছে। এর বাইরে অ্যারিজোনা ও নেভাদার ফল বাইডেনের পক্ষে যাবে বলে এক রকম নিশ্চিত।

একই ধরনের পূর্বাভাস দিয়েছে সিএনএন ও বার্তা সংস্থা রয়টার্সও। মার্কিন নির্বাচনে প্রেসিডেন্ট হতে একজন প্রার্থীর ২৭০টি ইলেকটোরাল ভোট প্রয়োজন হয়। এ হিসাবে বাইডেন ট্রাম্প থেকে অনেকটাই এগিয়ে।

মন্তব্য পড়ুন 0