default-image

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প অভিযোগ করেছেন, দেশটির খাদ্য ও ওষুধ প্রশাসন (এফডিএ) এবং ওষুধ কোম্পানি ফাইজার ইচ্ছাকৃতভাবে করোনাভাইরাসের টিকার অগ্রগতিবিষয়ক ঘোষণাটি এত দিন আটকে রেখেছিল।

ট্রাম্প এক টুইটে এ অভিযোগ করেন। আজ মঙ্গলবার বার্তা সংস্থা এএফপি এ তথ্য জানায়।

করোনাভাইরাসের টিকার অগ্রগতি বিষয়ে গতকাল সোমবার মার্কিন ওষুধ কোম্পানি ফাইজার একটি ইতিবাচক ঘোষণা দেয়। তারা জানায়, তাদের টিকা করোনাভাইরাস থেকে ৯০ শতাংশ পর্যন্ত সুরক্ষা দিতে পারে।

বিজ্ঞাপন

ট্রাম্পের অভিযোগ, এফডিএ ও ডেমোক্র্যাটরা চায়নি যে মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে একটি টিকা আসুক। তাই নির্বাচনের পাঁচ দিন পর টিকার অগ্রগতির ঘোষণাটি এসেছে।

ট্রাম্প বলেন, ‘আমি অনেক আগেই বলেছিলাম, ফাইজার ও অন্যরা টিকার বিষয়ে নির্বাচনের পর ঘোষণা দেবে। কারণ, এই ঘোষণা দেওয়ার সাহস তাদের নেই। তেমনি, এফডিএরও রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে নয়, বরং জীবন বাঁচাতে আগেই ঘোষণা দেওয়া উচিত ছিল।’

ট্রাম্পের ভাষ্য, জো বাইডেন প্রেসিডেন্ট থাকলে আরও চার বছরেও টিকা আসত না।
যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় লাখো মানুষের প্রাণহানির জন্য আমলাতন্ত্রকে দোষারোপ করেন ট্রাম্প।

আগে ট্রাম্প বলেছিলেন, দ্রুত টিকা আসার ক্ষেত্রে যাঁরা বাধা দিচ্ছেন, তাঁদের সরিয়ে দেওয়ার কাজ করছেন তিনি।

সদ্যসমাপ্ত মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান ট্রাম্প তাঁর ডেমোক্রেটিক প্রতিপক্ষ জো বাইডেনের কাছে পরাজিত হয়েছেন। তবে ট্রাম্প এখনো পরাজয় মানতে নারাজ। তিনি নির্বাচনের ফলাফল চ্যালেঞ্জ করে সর্বোচ্চ আদালতে যাওয়ার হুমকি দিয়ে রেখেছেন।

করোনাভাইরাসের টিকার অগ্রগতি বিষয়ে ফাইজারের গতকালের ঘোষণার প্রশংসা করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। তিনি বলেছেন, এফডিএ কঠোর পর্যালোচনা করে টিকা অনুমোদনের প্রক্রিয়া পরিচালনা করবে বলে তাঁর আশা। টিকা অনুমোদনের প্রক্রিয়াটি বৈজ্ঞানিক ভিত্তিতে স্বচ্ছতার সঙ্গে হতে হবে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0