default-image

করোনাভাইরাসের কারণে ঢাকায় মার্কিন দূতাবাসে ভিসা প্রক্রিয়া স্থবির হয়ে পড়েছে। ইমিগ্রান্ট বা অভিবাসী ভিসাসহ বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে আবেদন করে বসে আছেন। কিন্তু ভিসা প্রক্রিয়া ও সাক্ষাৎকার গ্রহণের কোনো তারিখ তাদের দেওয়া হচ্ছে না। যুক্তরাষ্ট্রে আসার অপেক্ষায় কয়েক হাজার মানুষ দূতাবাসে ধরনা দিয়েও কোনো প্রতিকার পাচ্ছেন না।

বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত মার্কিন নাগরিকদের স্ত্রী-সন্তান ও বাবা-মায়ের ভিসা প্রক্রিয়ায় এমন ধীর গতিতে হতাশা প্রকাশ করেছেন অনেকে। ভিসার জন্য আবেদনকারীদের মধ্যে দেখা দিয়েছে চরম উৎকণ্ঠা।

ঢাকায় মার্কিন দূতাবাসের ওয়েবসাইটেও কোভিড-১৯-এর কারণে নিরাপত্তার জন্য সীমিত আকারে স্বল্পসংখ্যক আবেদনকারীর সাক্ষাৎকার নেওয়ার কথা জানানো হয়েছে। অনলাইনে সাক্ষাৎকারের জন্য আবেদন করতে বলা হয়েছে। যাদের পাসপোর্ট করোনার প্রাদুর্ভাবের আগেই দূতাবাসে জমা দেওয়া হয়েছে, তাদের প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ সবকিছু ঠিক থাকলে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে সাক্ষাৎকার দেওয়া হচ্ছে। তবে এই সংখ্যা খুবই সীমিত বলে জানা গেছে।

বিজ্ঞাপন

কোভিড-১৯-এর কারণে দীর্ঘদিন ভিসা প্রক্রিয়া বন্ধ থাকার পর পুনরায় দূতাবাসের কার্যক্রম চালু হলেও আগের মতো ভিসা প্রক্রিয়ার কাজ চলছে না।

ইমিগ্রান্ট বা অভিবাসন ভিসার জন্য আবেদনকারী ইমতিয়াজ উদ্দিন বলেন, ‘আমার ছেলে যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক। সে আমার জন্য আবেদন করেছে। প্রয়োজনীয় কাগজপত্র জমা দেওয়া হয়েছে। মাসের পর মাস অপেক্ষা করছি, কিন্তু আমরা সাক্ষাৎকার পাচ্ছি না। ভিসা কখন পাব, তার কোনো সঠিক দিন-তারিখ জানি না। এর মধ্যে আমার শরীরে ক্যানসার ধরা পড়েছে। আশা করছিলাম, যুক্তরাষ্ট্রে গিয়ে উন্নত চিকিৎসা করাতে পারব। সেই আশা বিফলে যাবে বলে মনে হচ্ছে।’

স্ত্রী-সন্তানদের ভিসার জন্য আবেদন করেছেন আবদুল আহাদ। তিনি বলেন, চলতি বছরের শুরুর দিকে আমার স্ত্রী-সন্তানদের আনার জন্য আমার এক আত্মীয়ের কাছ থেকে অনুনয়-বিনয় করে স্পনসর নিয়েছি। আমার পরিবার দূতাবাসে পাসপোর্ট জমা দিয়েছে। কিন্তু এখনো ভিসা পায়নি। বর্তমানে সাক্ষাৎকারও পাচ্ছি না। অন্যদিকে নতুন বছরও চলে আসছে। এই বছর চলে গেলে তারা যদি ভিসা না পায়, তাহলে দূতাবাস হয়তো নতুন করে স্পনসর চাইবে। তখন কী করব বুঝতে পারছি না।

ভিসা প্রক্রিয়ায় ধীর গতি ও সাক্ষাৎকার প্রসঙ্গে নিউইয়র্কের ইমিগ্রেশন ফরম পূরণে সহায়তাকারী একটি কনসালটিং প্রতিষ্ঠানে কর্মরত কর্মকর্তা সায়লা আলম বলেন, ‘আমরা ভিসার জন্য কয়েক শ মানুষকে ভিসা আবেদন ফরম পূরণে সহায়তা করেছি। তাঁরা প্রতিদিন আমাদের কাছে ফোন করে ভিসা ইস্যু প্রক্রিয়ায় স্থবিরতা প্রসঙ্গে জানতে চান। আমরা তাদের কোনো সদুত্তর দিতে পারি না।’ সায়লা মনে করেন, মানুষের অসুবিধার কথা বিবেচনা করে ভিসা প্রক্রিয়া দ্রুত চালু করা প্রয়োজন।

তবে ঢাকায় মার্কিন দূতাবাস তাদের দেশের নাগরিকেরা বাংলাদেশে কোনো ধরনের অসুবিধায় থাকলে যেন যোগাযোগ করে—সে জন্য তাদের ওয়েবসাইটে দেওয়া ইমেইল অথবা হটলাইনে যোগাযোগ করার পরামর্শ দিয়েছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0