default-image

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার দিন কয়েক আগে জো বাইডেন নতুন নাগরিক প্রণোদনা প্রস্তাব উপস্থাপন করেছেন। স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার ডেলাওয়ার অঙ্গরাজ্যের উইলমিংটন শহর থেকে তিনি এই প্রস্তাব উপস্থাপন করেন।

বাইডেন তাঁর প্রস্তাবে করোনায় নাজুক মার্কিন লোকজনকে সরাসরি অর্থনৈতিক সহযোগিতার ঘোষণা দিয়েছেন।

অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধার নামে বাইডেন ১ দশমিক ৯ ট্রিলিয়ন ডলারের প্যাকেজ দিয়েছেন। এই অর্থের মধ্যে জনপ্রতি ১ হাজার ৪০০ ডলার করে নগদ দেওয়ার প্রস্তাব দিয়েছেন তিনি।

বর্তমান মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রশাসন দুই দফা জনগণের জন্য প্রণোদনা ঘোষণা দেয়। তা সত্ত্বেও আমেরিকার মানুষ নাজুক অর্থনৈতিক পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে যাচ্ছেন। গত সপ্তাহেই যুক্তরাষ্ট্রের অধিকাংশ মানুষ ৬০০ ডলার করে ফেডারেল অর্থ সহযোগিতা পেয়েছেন।

বাইডেন প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেবেন ২০ জানুয়ারি। তার আগে ১৪ জানুয়ারি প্রাইম টাইমে দেওয়া বক্তৃতায় তিনি ‘বিল্ড বেটার আমেরিকা’ গড়ে তোলার আহ্বান জানান।

দেশের জনগণকে অর্থনৈতিক নাজুক অবস্থা থেকে উদ্ধারে বাইডেন নানা খাতে আবার ফেডারেল প্রণোদনার ঘোষণা দিয়েছেন।

জনগণের কাছে নগদ অর্থ পৌঁছে দেওয়াসহ করোনার টিকা দ্রুততার সঙ্গে সর্বত্র সরবরাহ নিশ্চিত করতে অতিরিক্ত অর্থ বরাদ্দের ঘোষণা দিয়েছেন বাইডেন।

ঘোষিত প্যাকেজ অনুযায়ী, ৪১৫ বিলিয়ন ডলার অঙ্গরাজ্য-স্থানীয় সরকার, হাসপাতাল ও স্বাস্থ্যকেন্দ্রগুলোতে অনুদান হিসেবে দেওয়া হবে।

ক্ষুদ্র ব্যবসা চাঙা রাখার জন্য এর আগে ঘোষিত পে-চেক প্রোটেকশন, জরুরি তহবিল ঋণ কর্মসূচি বৃদ্ধি করা হবে। বাইডেনের নতুন প্রস্তাবে ৪৪০ বিলিয়ন ডলার রাখা হয়েছে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের জন্য।

বাইডেনের প্রস্তাব কংগ্রেসে গৃহীত হলে ৬০০ ডলারের অতিরিক্ত ১ হাজার ৪০০ ডলার, অর্থাৎ বহুল প্রতিশ্রুত ২ হাজার ডলার করে পাবেন সবাই।

বিজ্ঞাপন

বাইডেনের ঘোষণা অনুযায়ী, কর্মহীনতার মেয়াদ আগামী সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বাড়ানো হবে। বেকার ভাতার সঙ্গে অতিরিক্ত ৩০০ ডলারের পরিবর্তে ৪০০ ডলার করে দেওয়া হবে। আমেরিকার কর্মজীবীদের ন্যূনতম মজুরি ঘণ্টায় ১৫ ডলার করা হবে।

ঘরভাড়া দিতে না পারার জন্য ভাড়াটেদের আগামী সেপ্টেম্বর মাস পর্যন্ত উচ্ছেদ করা যাবে না। পাশাপাশি একই সময় পর্যন্ত গৃহঋণের কারণে কোনো বাড়ি নিলামে তোলা যাবে না।

নতুন প্রণোদনা প্রস্তাবে ৩৫০ বিলিয়ন রাখা হয়েছে রাজ্য ও স্থানীয় সরকারগুলোর জন্য। ১৭০ বিলিয়ন যাবে ১২ গ্রেড পর্যন্ত স্কুলের সহযোগিতা ও উচ্চশিক্ষার বিভিন্ন ইনস্টিটিউশনে। ৫০ বিলিয়ন ব্যয় করা হবে করোনা পরীক্ষার জন্য।

ট্যাক্স রিটার্নের সময় চাইল্ড ক্রেডিট ৩ হাজার ডলার করে দেওয়া হবে। তবে ৬ বছরের নিচের সন্তানদের জন্য তা ৩ হাজার ৬০০ ডলার হবে।

বক্তৃতায় বাইডেন বলেন, এই সহযোগিতাই শেষ সহযোগিতা নয়। অর্থনৈতিকভাবে নাজুক হয়ে পড়া আমেরিকার লোকজনকে তাঁর সরকার ক্রমাগত সহযোগিতা করে যাবে।

যুক্তরাষ্ট্রে গত বছরের মার্চ থেকে শুরু হওয়া করোনায় এখন পর্যন্ত প্রায় ২ কোটি ৪০ লাখ মানুষ সংক্রমিত হয়েছেন। মারা গেছেন ৩ লাখ ৯৭ হাজার মানুষ। যুক্তরাষ্ট্রে এখনো প্রতিদিন অসংখ্য মানুষ করোনায় সংক্রমিত হচ্ছেন। মারা যাচ্ছেন হাজারো মানুষ।

করোনায় ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান কার্যত বন্ধ। নগর-জনপদের পুরোনো চালচিত্র পাল্টে গেছে। কর্মহীন মানুষজন নিজেদের স্বাস্থ্য রক্ষার পাশাপাশি টিকে থাকার জন্য লড়ছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসের চরম নাজুক বাস্তবতায় বাইডেন ক্ষমতা গ্রহণ করতে যাচ্ছেন। তিনি জনগণের পাশে থাকার ব্যাপারে আশ্বস্ত করছেন।

যুক্তরাষ্ট্র থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন