default-image

মুসলমানদের বিরুদ্ধে ফেসবুকে বিদ্বেষমূলক পোস্ট দিয়ে সাজা পেয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যের এক পুলিশ কর্মকর্তা। অরেঞ্জ কাউন্টির ডেপুটি শেরিফ মাইকেল জনসনকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

গত ফেব্রুয়ারি মাসে পুলিশ কর্মকর্তা জনসন নিজের ফেসবুকে মুসলমানদের লক্ষ্যবস্তু করে একটি বিদ্বেষমূলক পোস্ট দেন। নাগরিক অধিকার সংগঠনের পক্ষ থেকে এই পোস্টের তীব্র প্রতিবাদ জানানো হয়। তদন্তের পর জনসনের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানায় স্থানীয় পুলিশ কর্তৃপক্ষ।

জনসন তাঁর ফেসবুক পোস্টে লিখেছিলেন, জেগে ওঠো আমেরিকা। ডেমোক্রেটিক পার্টি কেবল ভোটের চিন্তা করছে। মুসলমানরা আমেরিকা দখল করে নিচ্ছে।

জনসন তাঁর পোস্টে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের প্রতি সমর্থন জানিয়েছিলেন।

বিজ্ঞাপন

মুসলমান নাগরিক অধিকার সংরক্ষণ সংগঠন আমেরিকান ইসলামিক রিলেশনস পুলিশ কর্মকর্তা জনসনের এমন বিদ্বেষমূলক পোস্টের তীব্র প্রতিবাদ জানায়।সংগঠনটির পক্ষ থেকে আইনজীবী তাজ মারফি এ ব্যাপারে পুলিশ বিভাগে অভিযোগ করেন। ফলে, এ নিয়ে তদন্ত শুরু হয়।

তদন্তে পুলিশ কর্মকর্তা জনসন স্বীকার করেন, তাঁর এমন পোস্ট মুসলমানদের আহত করেছে। তিনি ঢালাওভাবে কথা বলতে গিয়ে সব মুসলমানকে আহত করেছেন।

জনসনের ২০ বছরের চাকরিজীবনে অন্য কোনো অসহিষ্ণু আচরণের প্রমাণ পাওয়া যায়নি। তবে মুসলমানবিরোধী ফেসবুক পোস্টের জন্য তাঁকে ১৫০ ঘণ্টার জন্য বিনা বেতনে বরখাস্ত করা হয়। পাশাপাশি তিন মাসের জন্য তাঁকে নিয়ন্ত্রিত বিভাগীয় দায়িত্ব পালনের জন্য সীমাবদ্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

ফ্লোরিডার অরেঞ্জ কাউন্টি পুলিশ কর্তৃপক্ষ জনসনের বিরুদ্ধে যে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিয়েছে, তাকে স্বাগত জানিয়েছেন আইনজীবী তাজ মারফি।

যুক্তরাষ্ট্র থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন