বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এর আগে গত বুধবার উত্তেজনা নিরসনে ফোনালাপ করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল মাখোঁ। ফোনালাপের পর দেওয়া এক বিবৃতিতে বলা হয়, আগামী অক্টোবরের শেষের দিকে দুই দেশের প্রেসিডেন্ট দেখা করতে রাজি হয়েছেন।

ব্লিঙ্কেন হোয়াইট হাউসের বিবৃতি পুনরাবৃত্তি করে বলেছেন, অস্ট্রেলিয়া ফ্রান্সের চুক্তি বাতিল করার পর বিষয়টি নিয়ে মিত্রদের মধ্যে উন্মুক্ত আলোচনার মাধ্যমে উপকৃত হওয়া যাবে।

জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে ফ্রান্সের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জ্যঁ-ইভেস লে ড্রিয়ান যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে ‘পিঠে ছুরি মারার’ অভিযোগ করেন। তবে ব্লিঙ্কেনের পক্ষ থেকে জ্যঁ-ইভেস লে ড্রিয়ানকে ব্যক্তিগত শ্রদ্ধা জানানোর কথা বলা হয়।

ব্লিঙ্কেন বলেন, ‘আমরা স্বীকার করি যে সম্পর্ক ঠিক করতে সময় ও কঠোর পরিশ্রম লাগবে এবং এটি কেবল কথায় নয়, কাজেও প্রদর্শিত হবে। আমি ফ্রান্সের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।’

যুক্তরাষ্ট্র থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন