default-image

যুক্তরাষ্ট্রে ওহাইও অঙ্গরাজ্যের কলম্বাসে এক কৃষ্ণাঙ্গ কিশোরীকে গুলি করে হত্যা করল পুলিশ। গতকাল মঙ্গলবার দুই ব্যক্তিকে ছুরিকাহত করার সময় ওই কিশোরীকে গুলি করা হয় বলে মার্কিন কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে। এ ঘটনার একটি ভিডিও ফুটেজ প্রকাশ করেছে পুলিশ।

বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে বলা হয়, কৃষ্ণাঙ্গ কিশোরীকে হত্যার প্রতিবাদে মানুষ রাস্তায় নেমে আসে। মিনেসোটায় কৃষ্ণাঙ্গ তরুণ জর্জ ফ্লয়েডকে হত্যায় অভিযুক্তকে দোষী সাব্যস্ত করার আগে ওহাইওর সবচেয়ে বড় শহরটিতে এ হত্যা ঘটনা ঘটে।

গতকাল ফ্লয়েডকে হত্যার দায়ে শ্বেতাঙ্গ পুলিশ কর্মকর্তা ডেরেক চৌভিনকে দোষী সাব্যস্ত করেন মিনেসোটার হেনেপিন কাউন্টি আদালত। গত বছর ফ্লয়েডকে গলায় হাঁটুচাপা দিয়ে শ্বাসরোধে মারেন চৌভিন। ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে ব্যাপক বিক্ষোভ শুরু হয়। একপর্যায়ে ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ শিরোনামে এ আন্দোলন যুক্তরাষ্ট্রের সীমানা ছাড়িয়ে যায়।

বিজ্ঞাপন

কলম্বাসে হত্যাকাণ্ডের ঘটনার কয়েক ঘণ্টার পর একটি ভিডিও ফুটেজ প্রকাশ করেন কলম্বাস পুলিশের প্রধান মিখায়েল উডস। ঘটনাস্থলে থাকা পুলিশের দেহের সঙ্গে যুক্ত ক্যামেরায় এ ভিডিও ধারণ করা হয়। মিখায়েল উডস বলেন, শহরের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলে একটি ঘরে কেউ ছুরি দিয়ে হামলা চালিয়েছে—এমন খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যান পুলিশ কর্মকর্তারা।

ভিডিওতে দেখা যায়, এক কৃষ্ণাঙ্গ কিশোরী একটি ধারালো ছুরি দিয়ে দুই নারীর দিকে হামলে পড়ে। তাঁদের ছুরিকাহত করার আগে তাকে নিবৃত্ত করতে পুলিশ গুলি করে। গুলিবিদ্ধ হয়ে ওই কিশোরী মাটিতে পড়ে যায়। তার হাত থেকে পড়ে যায় ছুরিটিও। রান্নার কাজে ব্যবহৃত হয়—এমন ছুরি ছিল সেটি। সে সময় এক পুলিশ কর্মকর্তা তার কাছে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে এগিয়ে যান।
কর্তৃপক্ষ জানাচ্ছে, নিহত কিশোরী ছিল ১৫ বছর বয়সী। তবে পরিবারের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, ম্যাকিয়াহ ব্রায়ান্ট নামের এ কিশোরীর বয়স ১৬ বছর। ব্রায়ান্টকে গুলি করা পুলিশ কর্মকর্তার পরিচয় পাওয়া যায়নি, তবে ভিডিওতে দেখা গেছে, তিনি শ্বেতাঙ্গ। পুলিশপ্রধান বলেন, ঘটনার তদন্তের জন্য তাকে দায়িত্ব থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্র থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন