default-image

যুক্তরাষ্ট্রের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন যুদ্ধ বাধাতে পারেন বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন চীন সরকারের এক উপদেষ্টা। ২২ নভেম্বর সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট পত্রিকায় প্রকাশিত এক প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা এএনআই এই তথ্য জানিয়েছে।

চীন সরকারের ওই উপদেষ্টার নাম ঝেং ইয়ংনিয়ান। তিনি চীনের শেনঝেনভিত্তিক চিন্তন প্রতিষ্ঠান অ্যাডভান্সড ইনস্টিটিউট অব গ্লোবাল অ্যান্ড কনটেমপোরারি চায়না স্টাডিজের ডিন।

বিজ্ঞাপন

সম্প্রতি দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ঝেং ইয়ংনিয়ান মত দেন, বাইডেন প্রশাসনের অধীনে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে চীনের সম্পর্ক স্বয়ংক্রিয়ভাবে উন্নতি হওয়ার বিভ্রম বেইজিংয়ের অবশ্যই ত্যাগ করা উচিত।

ভবিষ্যতে ওয়াশিংটনের আরও কঠোর অবস্থানের ব্যাপারে বেইজিংয়ের প্রস্তুত থাকা উচিত বলেও মত দেন চীন সরকারের এই উপদেষ্টা। তাঁর মতে, ভালো দিন শেষ হয়ে গেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সম্পর্ক মেরামতের প্রতিটি সুযোগ চীনের কাজে লাগানো উচিত বলে মনে করেন ঝেং ইয়ংনিয়ান।

চীন সরকারের ওই উপদেষ্টা বলেন, চীনকে দমনের ব্যাপারে যুক্তরাষ্ট্রে উভয় দলের মধ্যে এখন ঐকমত্য আছে। ফলে, বাইডেন হোয়াইট হাউসে প্রবেশের পর চীনের ব্যাপারে মার্কিন জনগণের অসন্তোষের সুযোগটি তিনি নিতে পারেন।

বাইডেন খুবই দুর্বল প্রেসিডেন্ট হবেন বলে মনে করছেন ঝেং ইয়ংনিয়ান। তাঁর মতে, বাইডেন যদি যুক্তরাষ্ট্রের অভ্যন্তরীণ সমস্যাগুলোর সমাধান করতে না পারেন, তাহলে তিনি কূটনৈতিক উপায়ে কিছু করবেন। তিনি চীনের বিরুদ্ধে কিছু করবেন।

চীন সরকারের ওই উপদেষ্টার ভাষ্য, ট্রাম্প গণতন্ত্র ও স্বাধীনতার উন্নয়নে আগ্রহী নন। কিন্তু বাইডেন আগ্রহী। ট্রাম্প যুদ্ধে আগ্রহী নন। কিন্তু একজন ডেমোক্রেটিক প্রেসিডেন্ট যুদ্ধ শুরু করে দিতে পারেন।

বাণিজ্য, মানবাধিকার, করোনাসহ নানান ইস্যুতে ট্রাম্প প্রশাসনের সময় যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে চীনের সম্পর্কের আরও অবনতি ঘটেছে। বাইডেন জয়ী হলে কিছুটা সময় নিয়ে অনেকটা সতর্কতার সঙ্গে তাঁকে অভিনন্দন জানায় চীন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন