জাতিসংঘের মহাসচিব বলেছেন, আর কোনো রক্তপাত ছাড়াই এই সংকট সমাধানে সম্পূর্ণ প্রতিশ্রুতিবদ্ধ তিনি।

পূর্ব ইউক্রেনের দুই অঞ্চলকে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ার পর দেশ দুটির মধ্যে উত্তেজনা বেড়েছে। রাশিয়ার সেনা অভিযানের শঙ্কায় ইউক্রেনে জরুরি অবস্থা জারি করা হচ্ছে। যেকোনো মুহূর্তে দেশটিতে হামলা চালানো হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। ইতিমধ্যে ইউক্রেন থেকে কূটনীতিকদের সরিয়ে নিতে শুরু করেছে রাশিয়া। রাশিয়ায় অবস্থানরত নাগরিকদেরও দ্রুত দেশটি ত্যাগ করতে বলেছে ইউক্রেন সরকার।

একই সঙ্গে রুশ সেনারা যদি ইউক্রেনের নতুন অঞ্চল দখলের চেষ্টা করে, তবে প্রতিরোধের জন্য প্রস্তুত হচ্ছে ইউক্রেনের সেনারা। তাঁদের সঙ্গে যোগ দিচ্ছে বেসামরিক মানুষও।

উত্তেজনার মধ্যে ইউক্রেনের পাশাপাশি বেলারুশ সীমান্তে রণপ্রস্তুতি নিয়েছে রাশিয়া। একটি প্রতিষ্ঠানের স্যাটেলাইট ছবিতে এ তথ্য উঠে এসেছে। গত মঙ্গলবার বেসরকারি মার্কিন প্রযুক্তি কোম্পানি মাক্সার টেকনোলজিসের স্যাটেলাইটে ধরা পড়া চিত্রে রাশিয়ার মিত্র বেলারুশের দক্ষিণাঞ্চলে ইউক্রেন সীমান্তের কাছে নতুন করে শতাধিক সামরিক যান ও ডজন ডজন অস্থায়ী সেনাশিবির দেখা গেছে।

উপগ্রহ থেকে তোলা ছবিতে আরও দেখা যাচ্ছে, রাশিয়ার পশ্চিমাঞ্চলে ইউক্রেন সীমান্তের কাছে ট্যাংক, কামান ও অন্যান্য ভারী সরঞ্জাম সরিয়ে নেওয়ার জন্য ব্যবহৃত বড় বড় সামরিক যান নিয়ে যাওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে সেখানে নতুন করে রাশিয়ার আরও অসংখ্য সেনা পাঠানোর বিষয়টিও দেখা যায়।

যুক্তরাষ্ট্র থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন