বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

টুইটার পোস্টে মাইক্রোসফটের সহপ্রতিষ্ঠাতা বলেন, ‘আমার করোনা শনাক্ত হয়েছে। আমি মৃদু উপসর্গ অনুভব করছি। বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ মেনে সুস্থ না হওয়া পর্যন্ত আইসোলেশনে থাকছি।’

আরেক টুইটার পোস্টে বিশ্বের অন্যতম এই ধনী লিখেছেন, তিনি সৌভাগ্যবান। কারণ, তিনি টিকা নিতে পেরেছেন। বুস্টার ডোজও নিয়েছেন। পরীক্ষা-নিরীক্ষার পাশাপাশি প্রয়োজনীয় চিকিৎসাসেবা পাওয়ার সুযোগ পেয়েছেন।

করোনা মহামারি মোকাবিলায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে যাচ্ছেন বিল গেটস। বিশেষ করে দরিদ্র দেশগুলোতে টিকা ও ওষুধ পৌঁছে দেওয়ার ক্ষেত্রে তিনি উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখছেন।

যুক্তরাষ্ট্রে করোনার সংক্রমণ অব্যাহত রয়েছে। দেশটিতে সম্প্রতি বেশ কয়েকজন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি করোনায় সংক্রমিত হন। তাঁদের মধ্যে রয়েছেন—মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন।

যুক্তরাষ্ট্র থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন