মার্কিন কংগ্রেসে ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর আসন্ন ভাষণ নিয়ে ওবামা প্রশাসনের বক্তব্যকে চ্যালেঞ্জ করেছেন প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার জন বেহনার। এ মুহূর্তে এভাবে কংগ্রেসে নেতানিয়াহুর ভাষণ দেওয়া যুক্তরাষ্ট্র-ইসরায়েল সম্পর্কের জন্য ‘ধ্বংসাত্মক’ হতে পারে বলে হোয়াইট হাউস যে মন্তব্য করেছে, তার জবাবে বেহনার বললেন, এই সম্পর্ক এতটা ঠুনকো নয়; কোনো কিছুই সম্পর্কের পথে বাধা হতে পারবে না। খবর রয়টার্সের।
বিরোধী রিপাবলিকান দলের নেতা বেহনার বৃহস্পতিবার এক বক্তব্যে বলেন, ‘প্রেসিডেন্টের (বারাক ওবামার) জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা বলেছেন, মার্কিন কংগ্রেসে প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহুর ভাষণ হবে ধ্বংসাত্মক। আমি এর সঙ্গে জোরালোভাবে দ্বিমত পোষণ করছি।’ সাপ্তাহিক সংবাদ সম্মেলনে দেওয়া ওই বক্তব্যে বেহনার আরও বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের জনগণ ও কংগ্রেসের উভয় পক্ষ সব সময়ই ইসরায়েলের পাশে দাঁড়িয়েছে। এ পথে কোনো কিছু বা কোনো ব্যক্তিই বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারবে না।’
হোয়াইট হাউস বা ওবামার ডেমোক্রেটিক দলের আইনপ্রণেতাদের সঙ্গে পরামর্শ না করেই সম্প্রতি ইসরায়েলি নেতা নেতানিয়াহুকে কংগ্রেসে ভাষণ দেওয়ার আমন্ত্রণ জানিয়ে প্রথা ভাঙেন প্রতিনিধি পরিষদের রিপাবলিকান স্পিকার বেহনার।
নেতানিয়াহুর আগামী মঙ্গলবার কংগ্রেসের উচ্চকক্ষ সিনেট ও নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদের যৌথ অধিবেশনে যে ভাষণ দেওয়ার কথা, সেটি হবে তাঁর এ ধরনের তৃতীয় ভাষণ। এ ভাষণে তিনি ইরানের বিতর্কিত পারমাণবিক কর্মসূচি নিয়ে পাশ্চাত্যের সঙ্গে চলমান সংলাপ ও ইসলামি জঙ্গিগোষ্ঠীগুলোর উত্থানের মতো বিষয় নিয়ে কথা বলবেন বলে মনে করা হচ্ছে। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময়ের ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী উইন্সটন চার্চিলই একমাত্র আন্তর্জাতিক নেতা, যিনি এর আগে মার্কিন কংগ্রেসে তিনবার ভাষণ দিয়েছেন।
ডেমোক্র্যাট কংগ্রেস সদস্যদের অনেকেই নেতানিয়াহুর ভাষণ বর্জনের ইঙ্গিত দিয়েছেন। কেউ কেউ বলেছেন, মার্কিন পররাষ্ট্রনীতির বিষয়ে কোনো বিদেশি নেতা মূল্যায়ন করবেন, এটা তাঁরা দেখতে চান না।
অনেক ইসরায়েলিই সফরের বিপক্ষে: ইউএসএ টুডে পত্রিকার খবরে বলা হয়, খোদ ইসরায়েলের অনেক মানুষই নেতানিয়াহুর এই সফর নিয়ে নাখোশ। টাইমস অব ইসরায়েল-এর একটি সাম্প্রতিক জরিপের ফলে দেখা গেছে, ৭২ শতাংশ ইসরায়েলিই মনে করে, প্রেসিডেন্ট ওবামা ইরানের পারমাণবিক সক্ষমতার রাশ টেনে ধরতে পারবেন না। তবে অনেক ইসরায়েলিই মনে করেন, নেতানিয়াহুর সফর বিশ্বে তাঁদের সবচেয়ে বড় ও প্রভাবশালী সমর্থক যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সম্পর্কের অপূরণীয় ক্ষতি করতে পারে।

বিজ্ঞাপন
যুক্তরাষ্ট্র থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন