কাতারের রাজধানী দোহায় যুক্তরাষ্ট্র ও আফগান তালেবানের মধ্যে সংলাপের আয়োজন নিয়ে তালেবানের কয়েকজন নেতার দাবি নাকচ করে দিয়েছেন উভয় পক্ষের মুখপাত্ররা। গত বৃহস্পতিবার ওই নেতারা দাবি করেছিলেন, সেদিনই পরে দোহায় দুপক্ষের মধ্যে আলোচনা অনুষ্ঠিত হবে। খবর এএফপির।
তালেবানের কয়েকজন কমান্ডার বলেছিলেন, আফগান যুদ্ধের দীর্ঘ ১৩ বছর পর শান্তি আলোচনা পথে ফেরানোর চেষ্টায় তালেবানের সর্বোচ্চ পরিষদের সাবেক পাঁচজন সদস্য কাতারে মার্কিন কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করবেন।
তবে যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের মুখপাত্র বার্নাডেট মিহ্যান বৃহস্পতিবারই রাতে বলেন, ‘দোহায় তালেবানের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের আলোচনার কোনো সম্ভাবনা বর্তমানে নেই।’ তালেবানের কেন্দ্রীয় কমান্ডও আলোচনার ওই দাবি থেকে দূরত্ব বজায় রেখে বলেছে, পুরোদস্তুর আলোচনায় বসার মতো পরিবেশ থেকে তারা (তালেবান) এখনো বহুদূরে।
তালেবানের মুখপাত্র জাবিহউল্লাহ মুজাহিদ এক বিবৃতিতে বলেন, ‘কাতারে কারও সঙ্গে মধ্যস্থতায় বসার কোনো পরিকল্পনা আমাদের নেই। সমঝোতার ব্যাপারে ইসলামিক আমিরাত অব আফগানিস্তানের নীতিতে নতুন পরিবর্তন আসেনি।’
ওয়াশিংটন, কাবুল ও তালেবানের মধ্যে আলোচনা শুরুর কয়েক দফা প্রচেষ্টা আফগান সরকারের গুরুত্বপূর্ণ সমর্থক দেশগুলোর তরফে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে নেওয়া হয়। তবে তা সামান৵ই সাফল্যের মুখ দেখেছে।
আলোচনায় সহায়ক ভূমিকা রাখার লক্ষ্যে প্রথম পদক্ষেপ হিসেবে ২০১৩ সালের জুন মাসে তালেবান কাতারে তাদের একটি অফিস খোলে। তবে তখনকার আফগান প্রেসিডেন্ট হামিদ কারজাইয়ের বিরোধিতায় তা এক মাস পরই বন্ধ হয়ে যায়।

বিজ্ঞাপন
যুক্তরাষ্ট্র থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন