বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ইউক্রেন সীমান্তে প্রায় লাখো সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। রাশিয়া এর মধ্য দিয়ে নিজেদের অনৈতিক দাবি বিশ্বে কাছে উপস্থাপন করছে বলে মন্তব্য করেছেন তিনি। তিনি আরও বলেন, রাশিয়া যদি সেখানে কোনো উসকানি দেয় এবং এরপর কোনো সামরিক পদক্ষেপ নেয়, তবে তাতে কেউ অবাক হবে না।

ইউক্রেন ইস্যুতে রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে উত্তেজনা দিন দিন বাড়ছে। এরপর যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এই ইস্যুতে একাধিকবার রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে কথা বলেছেন। কিন্তু কোনো কূটনৈতিক সমাধানে এখনো পৌঁছানো সম্ভব হয়নি।


দুই দেশের মধ্যকার উত্তেজনা হ্রাসে সোমবার থেকে আলোচনা শুরু হচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্রের সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়েন্ডি শারম্যান ও রুশ সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই রিয়াকভ আলোচনায় বসবেন।

যুক্তরাষ্ট্র থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন