default-image

করোনা পরীক্ষা করে রেস্তোরাঁয় বসে খাওয়া যাবে। যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক নগরীর একটি রেস্তোরাঁ এমন ব্যবস্থা শুরু করছে। দরজার বাইরে গ্রাহকদের তাৎক্ষণিকভাবে করোনা পরীক্ষা করা হবে। রেস্তোরাঁর পক্ষ থেকে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত একজন পরীক্ষক থাকবেন। তিনি গ্রাহক ও কর্মীদের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করবেন। ফলাফলের অপেক্ষায় থাকা গ্রাহকদের বিনা মূল্যে পানীয় সরবরাহ করা হবে।

এ জন্য গ্রাহককে ৫০ ডলার ফি গুনতে হবে। ফির পুরো অর্থ কোভিড-১৯ পরীক্ষার জন্য চুক্তিতে থাকা কোম্পানিতে যাবে বলে জানিয়েছেন রেস্তোরাঁর এক প্রতিনিধি।

সিটি ওয়াইনারি নামের এ রেস্তোরাঁ নিউইয়র্কে সবার আগে এ সুবিধা আনছে। আগামী সপ্তাহ থেকে রেস্তোরাঁয় গিয়ে করোনার পরীক্ষা করে আসা যাবে। কারও যদি পরীক্ষার পর ফলাফল নেগেটিভ আসে, তবে তিনি রেস্তোরাঁয় ঢুকে যেতে পারবেন। তারপরও সবাইকে মাস্ক ব্যবহার করতে হবে। শরীরের তাপমাত্রা মাপার বাধ্যবাধকতা তো থাকছেই।

বিজ্ঞাপন

রেস্তোরাঁয় করোনা পরীক্ষার ব্যবস্থা থাকবে সপ্তাহে দুদিন। এটা তাদের পরীক্ষামূলক প্রকল্প বলে এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে। সিটি ওয়াইনারির একজন প্রতিনিধির দেওয়া তথ্য থেকে এসব জানা গেছে। রেস্তোরাঁটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মাইকেল ডরফ বলেছেন, তিনি আশা করছেন, নগর কর্তৃপক্ষ এবং স্বাস্থ্যবিমা কর্তৃপক্ষ এ খরচ বহন করবে।

রেস্তোরাঁয় করোনা পরীক্ষার ব্যবস্থা নিয়ে অনেকেই ভিন্নমত প্রকাশ করেছেন। একজন লিখেছেন, ‘যাঁরা ৫০ ডলার ফি দিতে সক্ষম, তাঁরাই শুধু কোভিডমুক্ত পরিবেশ পাবেন। যাঁরা দিতে পারবেন না, তাঁরা পরীক্ষাবিহীন ঝুঁকি নিয়ে খেতে যাবেন।’

উল্লেখ্য, যুক্তরাষ্ট্র করোনার সংক্রমণ বেড়েই চলেছে। এ নিয়ে দেশটির স্বাস্থ্যসেবীরা সবাইকে সতর্ক করছেন। ‘থ্যাংকস গিভিং ডে’ উৎসব পালনে বাইরে ভ্রমণে নিরুৎসাহিত করছে সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট পদে নির্বাচনে জেতা জো বাইডেন গতকাল বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, পুরো দেশ পূর্ণ লকডাউন দেওয়ার পরিকল্পনা নেই। দেশজুড়ে মাস্ক বাধ্যতামূলক করার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

মন্তব্য পড়ুন 0