অস্ত্র হাতে এক ট্রাম্প সমর্থকের মহড়া। শুক্রবার মিনেসোটার সেন্টপলে।
অস্ত্র হাতে এক ট্রাম্প সমর্থকের মহড়া। শুক্রবার মিনেসোটার সেন্টপলে।ছবি: এএফপি।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জো বাইডেন জিতলেও পরাজয় স্বীকার করে নেওয়ার লক্ষণ বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মধ্যে দেখা যাচ্ছে না। নির্বাচনে কারচুপি ও অনিয়মের অভিযোগ তুলে ট্রাম্প আইনি লড়াইয়ের ঘোষণা দিয়েছেন। সেই সঙ্গে বলে আসছেন, বৈধ ভোটে তিনি প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন। এই অবস্থায় তাঁর কিছু সশস্ত্র সমর্থক সারা দেশের অঙ্গরাজ্যগুলোর ক্যাপিটল ভবনের কাছে জড়ো হয়েছেন।

নিউইয়র্ক টাইমসের খবরে বলা হয়েছে, কিছু শহরে উত্তেজনা চরমে। যেকোনো সময় বড় কোনো ধরনের সহিংসতার ঘটনা ঘটতে পারে ট্রাম্প সমর্থক ও বাইডেন সমর্থকদের মধ্যে। পেনসিলভানিয়া অঙ্গরাজ্যের হ্যারিসবার্গে পুলিশ দূর থেকে ট্রাম্প ও বাইডেন সমর্থকদের ওপর নজর রাখছেন। দুজনের সমর্থকদের আলাদা রাখতে শুক্রবার সকাল থেকে নানা ধরনের পদক্ষেপ নিয়ে যাচ্ছে পুলিশ। কিছু ট্রাম্প সমর্থকের হাতে অ্যাসাল্ট রাইফেল দেখা গেছে।

বিজ্ঞাপন

ওরেগন অঙ্গরাজ্যের সালেম শহরে ডানপন্থী সংগঠন প্রাউড বয়স–র সদস্যরা সমাবেশ নিয়ে জড়ো হয়েছেন। ট্রাম্প নির্বাচনে জালিয়াতির যে অভিযোগ তুলেছেন, তাতে সমর্থন জানিয়েই সংগঠনটির সদস্যরা এই সমাবেশ করেন। পুলিশ অবশ্য তাঁদের বাধা দিয়েছে।

default-image

মিশিগানের ল্যানসিং শহরে উগ্র ডানপন্থী ব্যক্তিরা ট্রাম্পের পক্ষে মিছিল করেন। তাঁরা স্লোগান দেন, ‘কার রাস্তা’, ‘আমাদের রাস্তা’। একটি ভিডিওতে দেখা যায়, সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়ার পর লোকজন মাটিতে পড়ে আছেন। অনেকের হাতে অস্ত্র দেখা গেছে।

বাইডেনের বিজয় উদ্‌যাপনের জন্য তাঁর অনেক সমর্থকে বিভিন্ন শহরে জড়ো হতে শুরু করেছেন। ফলে ট্রাম্প ও বাইডেনের সমর্থকদের মুখোমুখি অবস্থান সংঘাতের আশঙ্কা উসকে দিয়েছে।

মন্তব্য পড়ুন 0