default-image

গতকাল শনিবার থেকে কানাডায় বসন্ত ঋতু শুরু হয়েছে। কানাডায় চারটি ঋতু—শীত, বসন্ত, গ্রীষ্ম ও হেমন্ত (ফল)। শীতপ্রধান দেশ হওয়ার কারণে কানাডার মানুষ উষ্ণ আবহাওয়া খুব উপভোগ করেন। মূলত অক্টোবর থেকে শীতের আমেজ শুরু হয়।

default-image

যদিও প্রকৃতিতে তখন ফল সিজন থাকে। এ বছর শীতের দৈর্ঘ্য কিছুটা কম থাকলেও কয়েকটি প্রভিন্সে টানা তিন সপ্তাহজুড়ে তাপমাত্রা মাইনাস ৩০ থেকে ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছিল। শনিবার বসন্তের প্রথম দিনে টরন্টো, ভ্যানকুভার, মট্রিয়াল, রেজাইনা, উইনিপেগসহ দেশটির বড় বড় শহরগুলোতে তাপমাত্রা সহনীয় পর্যায়ে ছিল। ইতিমধ্যে যেসব নদী ও লেকে বরফ জমা ছিল, সেগুলো থেকে বরফ গলতে শুরু করেছে।

বিজ্ঞাপন

বসন্তের প্রথম দিনটি সাপ্তহিক ছুটির দিন (শনিবার) থাকার কারণে মানুষ বাইরে ঘুরে বেড়িয়েছে। অনেকে মাঠে খেলাধুলা করেছে, কেউ বাইসাইকেল নিয়ে বের হয়েছে। অনেকে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে ঘুরে বেড়িয়েছে। রাস্তায় দেখা গেছে বেশ কিছু মোটরসাইকেল এবং খোলা জিপ। কোভিড-১৯–এর কারণে বেশ কিছু বিধিনিষেধ থাকার কারণে মানুষ পরিবার-পরিজন নিয়ে বাইরে গরম আবহাওয়া উপভোগ করেছে।

default-image

খাবার দোকানগুলোতে সামাজিক দূরত্ব মেনে বাইরে বসে খাবারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। তাদের ব্যবসা ছিল জমজমাট। আইসক্রিমের দোকানগুলোতে ছিল প্রচণ্ড ভিড়। অন্যদিকে জমি থেকে বরফ গলে যাওয়ার ফলে কৃষকেরা আগামী সিজনের জন্য প্রস্তুত হচ্ছেন।

default-image

প্রতিবছর বসন্তের প্রথম দিনটি কানাডার বাংলাদেশি পরিবারগুলো একসঙ্গে পালন করলেও গত বছরের ন্যায় এ বছরও কোভিড-১৯–এর কারণে তা করতে পারিনি। তবে পরিবার নিয়ে ঘরোয়াভাবে নিজেরা নিজের মতো এই উৎসব পালন করেছে। অনেকে দিনের এক ফাঁকে কোনো পার্ক বা লেক থেকে ঘুরে এসেছে।

default-image
দূর পরবাস থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন