default-image

ব্রিটেনে দক্ষিণ এশীয় সাহিত্য, দর্শন ও সমাজতত্ত্বের ছোট কাগজ গ্রন্থী এবং ভারতীয় ধ্রুপদি সংগীতের সংস্থা সৌধ সোসাইটি অব পোয়েট্রি অ্যান্ড ইন্ডিয়ান মিউজিকের উদ্যোগে ৭ মার্চ রোববার বেলা দুইটায় (যুক্তরাজ্য) অন্তর্জালে উদযাপিত হতে যাচ্ছে আন্তর্জাতিক নারী দিবস। অনুষ্ঠানের সার্বিক সহযোগিতায় রয়েছে লা নিনফা একো নামের একটি ব্রিটিশ-আর্জেন্টাইন সাহিত্য পত্রিকা। অনুষ্ঠানটি গ্রন্থীর ফেসবুক পেজ এবং সৌধের ইউটিউব চ্যানেল থেকে সরাসরি সম্প্রচারিত হবে। এই উদযাপনে বিংশ শতকের শীর্ষস্থানীয় বাঙালি নারীবাদী লেখক বেগম রোকেয়ার কালজয়ী রচনা থেকে পাঠ, পুনঃপাঠের পাশাপাশি থাকছে সংগীত, কবিতা এবং নারীবাদ সম্পর্কিত তাত্ত্বিক  আলোচনা।

এ অনুষ্ঠানে শিল্প, রাজনীতি, জীবনের অনুসরণীয় যাত্রা বা পুরুষতন্ত্রের বিরুদ্ধে গৌরবময় লড়াইয়ের ক্ষেত্রে অনন্য অবদানের জন্য তিনজন নারীকে নগদ অর্থ সম্মাননা ও পদক প্রদান করা হবে। বেগম রোকেয়া পুরস্কার নামে অভিহিত এই সম্মাননা এ বছর পাচ্ছেন কালা সংগমের যুগ্ম প্রতিষ্ঠাতা ড. গীতা উপাধ্যায় ওবিই (যুক্তরাজ্যে ভারতীয় শিল্পকলার প্রচারে অনন্য ভূমিকা রাখার জন্য), ভারত থেকে কত্থক নৃত্যশিল্পী নয়নিকা ঘোষ চৌধুরী (ক্যানসারের সঙ্গে লড়াই, তদুপরি অদম্য গতিতে ভারতীয় শাস্ত্রীয় নৃত্যের পরিবেশনা ও প্রচারের জন্য) এবং বাংলাদেশে মুক্তিযুদ্ধে সাহসী সামরিক নেতা খালেদ মোশাররফ বীর উত্তমের স্ত্রী সালমা খালেদ (স্বামীর মৃত্যুর পরে অনন্য লড়াই এবং সাহসী পথচলার জন্য)।

বিজ্ঞাপন

প্রায় ৩১ জন বক্তা ও শিল্পী যোগ দিচ্ছেন এই ভার্চ্যুয়াল উদযাপনে। এর মধ্যে বাংলাদেশের শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক সাদেকুল আরেফিন, বিশিষ্ট সাংবাদিক ও চলচ্চিত্র নির্মাতা গীতা সহগল, লেখক ও নারীবাদী ড. অমৃতা উইলসন, বাংলাদেশের সাবেক সাংসদ মাহজাবীন খালেদ, যুক্তরাজ্যের ওয়ারউইক বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক রাশমি ভার্মা, বাংলাদেশের জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক মির্জা তাসলিমা সুলতানা।

সৌধ পরিচালক কবি টি এম আহমেদ কায়সারের সঞ্চালনা এবং গ্রন্থী সম্পাদক কবি শামীম শাহানের সমন্বয়ে এ অধিবেশনে কথা ও কবিতা পরিবেশনায় থাকছেন লাতিন আমেরিকার কবি ও নারীবাদী রোসি সুনে, আমেরিকা থেকে মরিয়াম তম্বোরেনিয়া ও নাট্যকার ন্যানসি গুয়েভেরা, ব্রিটিশ আর্জেন্টিনার কবি গ্যাবি সাম্বুসেসিটি, চিলির লেখক কারমেন বেরেনকুয়ার, মেক্সিকান কবি ক্লাউদিয়া পোসাদাস, কবি নন্দিনী মেহরা, ব্রিটিশ-ইউক্রেনীয় কবি ও চলচ্চিত্র নির্মাতা ভেরা গ্রাজিয়েদি, ব্রিটিশ–ভারতীয় লেখক গাঙ্গুলি, ভারতীয় বাঙালি কবি সেবন্তি ঘোষ ও বনানী চক্রবর্তী, ব্রিটিশ বাঙালি কবি তানজিনা নূর ই সিদ্দিক, ভারত থেকে আবৃত্তিশিল্পী স্বপ্না দে, বাংলাদেশ থেকে সুলতানা ইয়াসমিন এবং যুক্তরাজ্যের শাহীন মিতুলি।

অনুষ্ঠানে সংগীত পরিবেশন করবেন ইরানি সংগীতশিল্পী নিকনাজ মিরঘালামি, খ্যাতিমান ব্রিটিশ-ভারতীয় কণ্ঠশিল্পী ও সুরকার সুপ্রিয়া নাগারাজন এবং হিন্দুস্তানি উপশাস্ত্রীয় শিল্পী সুমনা মল্লিক বসু। এ ছাড়া ভারত থেকে কত্থক শিল্পী মায়া কুলশ্রেষ্ঠ, গৌড়ীয় নৃত্যশিল্পী রাচেল পেরিস, ভারতীয় কোরিওগ্রাফার এবং শাস্ত্রীয় নৃত্যশিল্পী সোহিনী রায়চৌধুরী দাশগুপ্ত নৃত্য পরিবেশনায় যোগ দেবেন।

সৌধ পরিচালক টি এম আহমেদ কায়সার বলেন, ‘পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের নারীবাদী লেখক, শিল্পী এবং কবিদের সমন্বয়ে এই ব্যাপক আয়োজনের মধ্য দিয়ে আমরা বিংশ শতকের অন্যতম সেরা বাঙালি নারীবাদী লেখিকা বেগম রোকেয়ার কালজয়ী রচনা এবং নারীচিন্তাকে আন্তর্জাতিক পরিসরে নিয়ে আসতে চাই। এ বছর থেকে বেগম রোকেয়া পুরস্কার নামে যে পদকের গোড়াপত্তন হলো, তা অব্যাহতভাবে নারীবাদী কর্মকাণ্ডের স্বীকৃতি প্রদানে সক্রিয় থাকবে প্রতিবছর।’

বিজ্ঞাপন
দূর পরবাস থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন