প্রথম আলো ইংরেজি সংস্করণের (en.prothomalo.com) বাড়তে থাকা পাঠকসংখ্যাই প্রমাণ করে যে এটার ইংরেজি সংস্করণের যথেষ্ট চাহিদা রয়েছে। পাঠকেরা কেন এই সাইট দেখতে চান? 

কারণগুলো খুব পরিষ্কার। বাংলাদেশে প্রথম আলোর ধারেকাছেও আর কোনো নিউজ পোর্টাল নেই। 

একজন মানুষ (প্রবাসী বাঙালি বা অন্য কোনো দেশের মানুষ) পৃথিবীর যেকোনো জায়গায় বসে বাংলাদেশের জানতে চাইতে পারেন। কিন্তু ভাষাগত বাধার কারণে হয়তো তাঁরা প্রথম আলোর বহুল সমৃদ্ধ পোর্টাল থেকে এগুলো সংগ্রহ করতে পারেননি। সুতরাং তাঁরা ইংরেজি ওয়েবসাইটটিতে ক্লিক করছেন, আর ব্যস! এর সবকিছুই পেয়ে যাচ্ছেন সেখানে।

এই কাজটা কি গুগল ট্রান্সলেটর করতে পারে না? সেটা একেবারেই যথাযথ হবে না। একটা উদাহরণ দেওয়া যাক, কিছুদিন আগে যখন রোজিনা ইসলামকে তাঁর অনুসন্ধানী সাংবাদিকতার জন্য গ্রেপ্তার করা হয়, প্রতিবেশী একটি দেশের এক ইংরেজি সংবাদ পোর্টাল বাংলাদেশি একটি প্রতিবেদন থেকে সংবাদ তৈরি করতে গুগল ট্রান্সলেটর ব্যবহার করেছিল।

সেখানে বলা হয়েছিল, ‘Rozina Islam went to the fishermen.’ ‘Fishermen’ শব্দটা কেমন যেন গোলমেলে ছিল।

আসলে বাংলা প্রতিবেদনে লেখা ছিল, ‘রোজিনা ইসলাম জেলে গেলেন’। 

গুগল ‘জেলে’ শব্দটাকে ‘fishermen’ হিসেবে ভাষান্তর করেছিল। 

অতএব, সমস্ত ইঙ্গিত আর ভাবার্থ অটুট রেখে প্রথম আলোর শুদ্ধ, পাঠযোগ্য আর মানসম্মত প্রতিরূপের জন্য এর ইংরেজি সংস্করণের কোনো বিকল্প নেই। 

তাহলে কেন পড়বেন ইংলিশ প্রথম আলো? কেন নয়!  

লেখক: হেড অব ইংলিশ ওয়েব, প্রথম আলো