বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

‘সবার আগে’ সংবাদ প্রকাশেরও আগে তাই সংবাদের সত্যতা ও বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই প্রথম আলোর জন্য বিশেষভাবে জরুরি। অনলাইন সাংবাদিকতার সেটাই ‘পাওয়ারপ্লে’। আপনি ব্রেকিং নিউজ দিয়ে অনলাইন জগতে কোনো সংবাদপ্রবাহের শুরুটা ধরতে পারুন আর না-ই পারুন, ‘পাওয়ারপ্লে’তে আপনি দেখাবেন আপনার সাংবাদিকতা, বিশ্লেষণ ও লেখার শক্তি। পুরোপুরি নিশ্চিত না হয়ে প্রথম আলো ব্রেকিং নিউজের পেছনে ছোটে না। তবে ‘পাওয়ারপ্লে’ শক্তিটা দেখাতে পারে বলেই প্রথম আলো পাঠকের আস্থার জায়গা।

প্রথম আলোর অন্যান্য বিভাগের মতো খেলা বিভাগও এই নীতি ভালোভাবে মেনে চলার চেষ্টা করে এবং সেটা করেই আমাদের খবর দেশ-বিদেশের বাংলাভাষী পাঠকদের কাছে বিপুল জনপ্রিয় ও বিশ্বাসযোগ্য। অনেক সময় কিছু খবর প্রথম আলোর আগে পাঠক অন্যত্র পেয়ে গেলেও বিষয়টি পুরোপুরি নিশ্চিত হওয়ার জন্য তাঁরা অপেক্ষায় থাকেন প্রথম আলো কখন খবরটি দেবে।

এমন নয় যে অন্য সাইটগুলো সব সময় সঠিক খবর দিচ্ছে না বা আগে দিচ্ছে না। আমি বলছি, পাঠকের আস্থার জায়গাটার কথা, যেটা প্রথম আলো তার কাজ দিয়েই অর্জন করেছে। প্রথম আলোর প্রতি পাঠকদের এই আস্থার কথা বিভিন্ন জরিপ এবং গবেষণার মাধ্যমেই আমরা জেনেছি। খেলার খবর নিয়ে একটি উদাহরণও দেওয়া যেতে পারে। এ বছরই প্রথম আলোর খেলার এক দিনের সর্বোচ্চ পেজভিউ উঠেছে প্রায় ১৮ লাখ। তার মানে ওই দিন ১৮ লাখবার পাঠক প্রথম আলোর খেলা বিভাগে ঢুকেছেন, আমাদের পরিবেশিত খবর পড়েছেন।

প্রথম আলোর খেলার খবরের প্রতি পাঠকদের এই আস্থা দিন দিন বেড়েই চলেছে। খেলার পাঠক, বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গনের মানুষ—সবারই আস্থার জায়গা হয়ে উঠেছে প্রথম আলো। এমনকি আমাদের প্রতিবেদন যাঁদের বিপক্ষে যায়, তাঁরাও সঠিক খবরের জন্য প্রথম আলোর ওপরই আস্থা রাখেন।

গত এক বছরে খেলা বিভাগের করা স্থানীয় এবং আন্তর্জাতিক ক্রীড়াঙ্গনের অনেক খবর-ফিচারই পাঠকদের মধ্যে সাড়া ফেলেছে, তাঁদের চিন্তার খোরাক জুগিয়েছে। বিশেষ কিছু লেখা বা খবরের শিরোনামের কথা যদি বলেন, তাহলে সবার আগে আসে ‘রাত ২টায় নতুন প্রস্তাব নিয়ে মেসির দরজায় বার্সেলোনা’। শুধু এই খবরই পড়েছেন ৪ লাখ ৩৫ হাজারের বেশি পাঠক।

প্রথম আলোর আর যেসব খবর পাঠকমহলে ব্যাপক আলোচনার জন্ম দিয়েছে, সেগুলোর মধ্যে আছে ঢাকা প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগে সাকিব আল হাসানের লাথিকাণ্ড নিয়ে ‘সাকিবের লাথি যেন ঘরোয়া ক্রিকেটকেই’, সাকিবের ক্ষমা চাওয়ার খবর, বাংলাদেশের ক্রিকেটের সমস্যা নিয়ে ‘বলছি মঙ্গল গ্রহের ক্রিকেটের কথা’, নারী ক্রিকেটার সানজিদার ব্যতিক্রমধর্মী গায়েহলুদ নিয়ে ‘গায়েহলুদেও সানজিদার হাতে ব্যাট’—এ রকম আরও অনেক কিছুই।

মেসির বার্সেলোনা ছেড়ে যাওয়ার ঘটনার প্রতিমুহূর্তের খবর নিয়ে লাইভ করেছে প্রথম আলো। আন্তর্জাতিক ক্লাব ফুটবলে চাঞ্চল্য সৃষ্টি করা এই ঘটনা নিয়ে আমাদের বিশ্লেষণমূলক লেখাগুলো পাঠক–সমাদৃত হয়েছে। দিন-রাত কাজ করে ইউরো-কোপা আমেরিকার সব টাটকা খবর আমরা দিয়েছি। ‘রোনালদোর এক কাণ্ডে ৩৩ হাজার কোটি খোয়ালো কোকাকোলা’ শিরোনামের খবরটি পড়েছেন ৩ লাখ ৩০ হাজারের বেশি পাঠক।

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের যেকোনো ম্যাচের লাইভ করে প্রথম আলো, সঙ্গে বিশ্লেষণমূলক লেখা। চলমান টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও সেটি হচ্ছে। লাইভে প্রচুর পাঠক থাকেন আমাদের সঙ্গে, যেন প্রথম আলোর সঙ্গেই খেলা দেখছেন তাঁরা! গত জিম্বাবুয়ে সফরে টেস্ট ক্রিকেট থেকে মাহমুদউল্লাহর আকস্মিক অবসরের খবর প্রথম আলোই সবার আগে দিয়েছে। এ নিয়ে বিশ্লেষণমূলক লেখাগুলো ব্যাপক পাঠকপ্রিয়তা পেয়েছে। আইপিএল খেলতে জাতীয় দল থেকে সাকিবের ছুটি নেওয়ার খবরও ‘ব্রেক’ করেছে প্রথম আলোই। টোকিও অলিম্পিক আমরা শুরুই করেছি ‘রেকর্ডে’র খবর দিয়ে। ‘সাঁতারে শুরু বিশ্ব রেকর্ড দিয়ে’ খবরটি পড়েছে ৩ লাখ ২০ হাজারের বেশি পাঠক।

default-image

ঘরোয়া ফুটবল ও স্থানীয় অন্যান্য খেলার খবর, মানবিক প্রতিবেদন— প্রথম আলো সব ধরনের পাঠকের কথা চিন্তা করে প্রথম আলো অনলাইন এসবও গুরুত্ব দিয়ে ছাপে। সঙ্গে ভিডিও, ছবির অ্যালবাম—এসব তো আছেই।

আধুনিক সাংবাদিকতায় ‘টি-টোয়েন্টি’র সুরটা ধরতে পেরেছেন বলেই প্রথম আলোতে চোখ না রাখলে পাঠকের জানা-বোঝার জগৎটা থেকে যায় অপূর্ণ। আর পাঠকেরাই তো আমাদের শক্তি, এগিয়ে যাওয়ার প্রেরণা। গ্যালারি থেকে হাততালি না এলে আমরাই–বা ভালো খেলব কী করে!

  • তারেক মাহমুদ: হেড অব স্পোর্টস

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন