default-image

ঢাকার মহানগর দায়রা জজ আদালতের এজলাসকক্ষে আগুন লাগার ঘটনা ঘটেছে। এতে এজলাসকক্ষের ওপরে রাখা পুরোনো বেশ কিছু নথিপত্র পুড়ে গেছে।

আজ সোমবার বিকেল ৪টা ৪৫ মিনিটের দিকে আগুন লাগে। ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট এক ঘণ্টারও বেশি সময় চেষ্টা চালিয়ে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়।

এজলাসকক্ষের ওপরে রাখা পুরোনো নথিপত্রের স্থান থেকে আগুন লাগে বলে জানা গেছে। ধারণা করা হচ্ছে, শর্টসার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত।

ফায়ার সার্ভিস কন্ট্রোল রুমের অপারেটর আনিসুর রহমান প্রথম আলোকে বলেন, এজলাসকক্ষের আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে।

বিজ্ঞাপন
default-image

ঢাকার মহানগর দায়রা জজ আদালতের হাজতখানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক মইনুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, ঢাকার মহানগর দায়রা জজ আদালতে বিচার চলাকালে হঠাৎ এজলাসকক্ষের ভেতরে পেছন দিক থেকে ধোঁয়ার কুণ্ডলী বের হয়। ফায়ার সার্ভিসের দলটি আগুন পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়েছে। এজলাসকক্ষের ওপরে রাখা পুরোনো নথিপত্রের স্থান থেকে আগুন লাগে বলে জানা গেছে। ধারণা করা হচ্ছে, শর্টসার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত। তবে প্রকৃতপক্ষে কীভাবে আগুন লেগেছে, তা জানা যাবে ফায়ার সার্ভিসের তদন্ত প্রতিবেদন হাতে পাওয়ার পর।

আগুনের ক্ষয়ক্ষতি সম্পর্কে আদালতের নাজির শাহ মো. মামুন জানান, আগুনে কিছু নিষ্পত্তিকৃত মামলার নথিপত্র পুড়ে গেছে। তবে কতগুলো নথি পুড়েছে, তা এই মুহূর্তে বলা যাচ্ছে না।

ওই আদালতের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) তাপস কুমার পাল প্রথম আলোকে বলেন, কীভাবে আগুনের সূত্রপাত, তা জানা যায়নি। তবে এজলাসের পেছনের অংশে নথিপত্র রাখা ছিল। সেখান থেকে মূলত প্রথম ধোঁয়ার কুণ্ডলী বের হয়।

সরেজমিনে দেখা যায়, এজলাসকক্ষের ভেতর থেকে যখন ধোঁয়ার কুণ্ডলী বের হচ্ছিল, তখন আদালতের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা আগুন নেভানোর চেষ্টা চালাচ্ছিলেন। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আগুন নেভানোর কাজ শুরু করেন। তখন আদালতের সামনে উৎসুক লোকজন ভিড় করেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0