দেশের বিভিন্ন স্থানে আটক ও গ্রেপ্তার অভিযান অব্যাহত রয়েছে। গত শনিবার রাত থেকে গতকাল রোববার পর্যন্ত আট জেলা থেকে ২৮ জনকে আটক করেছে পুলিশ ও যৌথ বাহিনী। বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০-দলীয় জোটের অনির্দিষ্টকালের অবরোধে চলমান হরতালের মধ্যেই এসব ধরপাকড় চলছে। প্রথম আলোর প্রতিনিধিরা বিস্তারিত জানিয়েছেন।
কক্সবাজার শহরের উত্তর তারাবুনিয়ারছড়া এলাকা থেকে দেশে তৈরি একটি কাটাবন্দুকসহ একজনকে গ্রেপ্তার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ। শনিবার রাত ১০টার দিকে গ্রেপ্তার হওয়া ব্যক্তি জেলা ছাত্রশিবিরের সভাপতি জাহেদুল ইসলাম নোমান। তিনি চকরিয়া উপজেলার খুটাখালী ইউনিয়নের উত্তর ফুলছড়ি গ্রামের মৃত আবদুস সামাদের ছেলে।
দিনাজপুরের বিরলে আকতারুল ইসলাম (১৬) নামের এক শিবির কর্মীকে আটক করে থানায় সোপর্দ করা হয়েছে। স্থানীয় জনতার দাবি, আকতারুল সড়কে নাশকতার প্রস্তুতি নিচ্ছিল। তাই তাঁরা তাকে ধরে পুলিশে দেন। আকতারুল বিরল উপজেলার শহরগ্রাম ইউপির ওকড়া গ্রামের মো. পানতুল্লাহ্র ছেলে।
সুনামগঞ্জ জেলার বিভিন্ন স্থানে শনিবার অভিযান চালিয়ে বিএনপি ও জামায়াতের তিন কর্মী-সমর্থককে আটক করা হয়েছে।
গাইবান্ধায় বিএনপি ও জামায়াত-শিবিরের সাত নেতা-কর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে যৌথ বাহিনী। এর মধ্যে ৬ ফেব্রুয়ারি গাইবান্ধা সদর উপজেলার তুলসীঘাটে পেট্রলবোমা মেরে আটজনকে হত্যা মামলার আসামিও রয়েছেন।
মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলায় বিয়ের অনুষ্ঠানে যাওয়ার পথে গতকাল দুপুরে জামায়াতের চার কর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা হলেন জুড়ী উপজেলা সদরের জায়ফরনগর ইউনিয়নের বাহাদুরপুর গ্রামের বাসিন্দা জামায়াতের কর্মী আকমল আলী (৪৫), জায়েদ আহমদ (৩২), হাসনাবাদের জুবেল উদ্দিন (৩০) ও হামিদপুরের কটু খাঁ (৫০)।
পঞ্চগড়ের আটোয়ারী উপজেলায় যৌথ বাহিনীর অভিযানে বিএনপি-জামায়াতের পাঁচ নেতা-কর্মীকে আটক করা হয়েছে। গতকাল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী হাকিম মো. আশরাফুল ইসলামের নেতৃত্বে যৌথ বাহিনীর সদস্যরা উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাঁদের গ্রেপ্তার করেন।
মেহেরপুর সদর উপজেলা শহরের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে বিএনপি ও জামায়াতের পাঁচ শীর্ষ নেতাকে আটক করেছে যৌথ বাহিনী। আটক ব্যক্তিরা হলেন মেহেরপুর পৌর বিএনপির সভাপতি জাহাঙ্গীর বিশ্বাস, জেলা শ্রমিক দলের আহ্বায়ক আহসান হাবিব, সদর উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক শাহাবুদ্দিন মোল্লা, পিরোজপুর ইউপির চেয়ারম্যান ও সদর উপজেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক সামসুল আলম এবং জেলা জামায়াতের সাংগঠনিক সেক্রেটারি রুহুল আমিন।
সিরাজগঞ্জের এনায়েতপুরে ইউপি সদস্যসহ জামায়াতের দুই নেতাকে আটক করেছে পুলিশ। তাঁরা হলেন শাহজাদপুর উপজেলার জালালপুর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য জামায়াত-সমর্থক আজমত আলী ও আবদুল হালীম ওরফে টেইলার্স হালীম।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন