default-image

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, ‘জোরালোভাবেই বলতে চাই, স্বাস্থ্য খাতকে আমরা সেভাবে গুরুত্ব দিইনি। এ খাতকে অবহেলা (নেগলেট) করেছি।’


বৃহস্পতিবার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) এক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উপলক্ষে এই আলোচনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।


মন্ত্রী জাহিদ মালেক আওয়ামী লীগ সরকারের গত মেয়াদে একই মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্বে ছিলেন। মন্ত্রী বলেন, ‘স্বাস্থ্য খাতকে গুরুত্ব না দেওয়ার ফল এই করোনাকালে আমরা পেয়েছি। শুধু আমরাই নই, কোনো দেশই স্বাস্থ্য খাতকে তেমনভাবে গুরুত্ব দেয়নি। করোনা মহামারিতে এসে সবাই এটা বুঝতে পারছে। আমরা কতটা অসহায়।’

বিজ্ঞাপন


জাহিদ মালেক বলেন, স্বাস্থ্য খাতে গবেষণায় দেশ পিছিয়ে আছে। এখানে উন্নয়ন করতে হবে। তিনি বলেন, নভোযান পাঠানো হচ্ছে, মারণাস্ত্র তৈরি হচ্ছে। অথচ চোখে দেখা যায় না, হাতে ধরা যায় না, এমন একটা শত্রুর কাছে আজ দেশ-পৃথিবী আক্রান্ত। তিনি বলেন, ‘মনে হয় যেন আমরা হেরে গেছি।’


মন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, স্বাস্থ্যসেবার বিপর্যয় ঘটলে মানুষের কী অবস্থা হয়, করোনাকালে বিশ্ববাসী এটা বুঝতে পারছে। স্বাস্থ্য খাতে বিপর্যয় হলে দেশের সব উন্নয়ন থেমে যায়। মন্ত্রী বলেন, ‘বর্তমানে স্বাস্থ্য খাতে আমাদের বাজেট জিডিপির মাত্র শূন্য দশমিক ৯ শতাংশ। অনেক দেশে এটা ৩ থেকে ১০ শতাংশ। জিডিপিতে এটাকে ৯ থেকে ১০ শতাংশে নেওয়া যায় কীভাবে, আমরা সে লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছি।’
বিএসএমএমইউর উপাচার্য মো. শারফুদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন