বঙ্গবন্ধুর প্রথম প্রেস সচিব, মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক খন্দকার আমিনুল হক বাদশার মরদেহ আজ রোববার দুপুরে বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে ঢাকা পৌঁছানোর কথা রয়েছে।
গত শুক্রবার সন্ধ্যায় পূর্ব লন্ডনের মন্টিফিউরি সেন্টারে আমিনুল হক বাদশার শোকসভা হয়। লন্ডন বাংলা প্রেসক্লাবের আয়োজনে শোকসভায় প্রবীণ সাংবাদিক আবদুল গাফ্ফার চৌধুরী বলেন, আমিনুল হক বাদশার জন্য রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফনের আয়োজন করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে রাজি করানো সম্ভব হয়নি। তিনি বলেন, ‘আমি অন্তত চেয়েছিলাম বাদশাকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দেশে নিয়ে মাটি দেওয়া হোক। এটা তাঁর প্রাপ্য ছিল। কিন্তু কিছুতেই নরম করা গেল না।’
গাফ্ফার চৌধুরীর এ বক্তব্য সম্পর্কে যোগাযোগ করা হলে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব এ কে এম শামীম চৌধুরী গতকাল প্রথম আলোকে বলেন, বিষয়টি তিনি অবগত নন।
লন্ডনে শোকসভায় আরও বক্তব্য দেন সাবেক কাউন্সিলর শাহাব উদ্দিন আহমদ, লেবারদলীয় রাজনীতিবিদ রাজন উদ্দিন, আবদুর সাকুর, সাপ্তাহিক নতুন দিন-এর সম্পাদক মুহিব চৌধুরী, পত্রিকার প্রধান সম্পাদক মোহাম্মদ বেলাল আহমদ, জনমত-এর প্রধান সম্পাদক সৈয়দ নাহাস পাশা প্রমুখ।
পরিবার সূত্র জানিয়েছে, আজ বেলা আড়াইটা থেকে সাড়ে তিনটা পর্যন্ত সর্বসাধারণের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য মরদেহ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে রাখা হবে। বাদ আসর বায়তুল মোকাররম মসজিদে জানাজার পর মরদেহ রাখা হবে বারডেম হাসপাতালের হিমঘরে। কাল সোমবার সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত মরদেহ রাখা হবে জাতীয় প্রেসক্লাব চত্বরে।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন