বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা দেশের দক্ষিণাঞ্চলে আরেকটি পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপন করতে চাই। এ ব্যাপারে রাশিয়ার অব্যাহত সহযোগিতা প্রয়োজন।’

পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলার রূপপুরে রাশিয়ার কারিগরি ও আর্থিক সহযোগিতায় প্রথমবারের মতো পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ করছে বাংলাদেশ। এতে রোসাটম সহযোগিতা দিচ্ছে।

পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের নিরাপত্তার বিষয়ে সর্বাধিক গুরুত্বারোপ করেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি রোসাটমের মহাপরিচালককে স্থানীয় জনগণকে প্রশিক্ষণ দেওয়ার আহ্বান জানান, যাতে তাঁরা রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র (আরএনপিপি) চালাতে পারেন।

আলেক্সি লিখাচেভ বলেন, বাংলাদেশ ও রাশিয়ার পারস্পরিক সহযোগিতা পারমাণবিক ক্ষেত্রে প্রবেশ করেছে। ২০২৩ সালের মধ্যে বাংলাদেশ পরমাণু শক্তিধর দেশে পরিণত হবে।

আলেক্সি লিখাচেভ আরও বলেন, আরএনপিপি পরিচালনার জন্য তাঁরা বাংলাদেশিদের প্রশিক্ষণ দেবেন। বাংলাদেশের বিদ্যুৎ খাতে তাঁদের সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন