আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘আমরা কথায় কথায় বলি—রাজাকারের সঙ্গে আপস হবে না। রাজাকারের দল আছে আর আপনার দলের কমিটিতেই আছে (রাজাকার)। অন্য জেলার কথা আমি জানি না, আমি তো আমার জেলার (পিরোজপুর) কথা জানি। আগে নিজের চেহারা আয়নায় দেখুন।’

পিরোজপুর-২ (কাউখালী, ভান্ডারিয়া ও ইন্দুরকানী) আসন থেকে নির্বাচিত সাংসদ আনোয়ার হোসেন আরও বলেন, ‘এই কথার সঙ্গে কোনো দ্বিমত হবে না, তাদের সঙ্গে আমাদের চিন্তার মিল নেই, রাজনীতির মিল নেই, আদর্শের মিল নেই। এ প্রজন্মের ছেলেপেলে। তারা তো এগুলো জানে না। তারা খালি শোনে ধর্ষণ।’

জেপি চেয়ারম্যান বলেন, ‘স্বাধীনতার ৫১ বছরে যেসব আলোচনা এখন আমরা করি, আমি মনে করি, সময়ক্ষেপণ করছি।’

অনুষ্ঠানে উপস্থিত আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও সাংসদ শাজাহান খানকে উদ্দেশ করে আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘শাজাহান খান বা আওয়ামী লীগের নেতাদের সঙ্গে আমার দ্বিমত হয় না। আমি যখন ভাবি, জাতীয় পার্টি বা বিএনপি খিচুড়ি পার্টি; এসব দলের কমিটিতে তারা (রাজাকাররা) থাকতে পারে। কিন্তু আওয়ামী লীগের মধ্যে কেমন করে আছে? ছাত্রলীগের মধ্যে কেমন করে আছে? যুবলীগের মধ্যে কেমন করে আছে? শাজাহান খান, জবাব দিয়ে যেতে হবে।’

শাজাহান খানও অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন