কীভাবে তাঁদের প্রত্যাবাসন করা হবে, জানতে চাইলে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘ইউক্রেন থেকে পোল্যান্ড সীমান্ত পর্যন্ত বাংলাদেশিদের নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় আসতে হবে। পোল্যান্ডে বেশ কয়েকটি জায়গায় তাঁদের থাকার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। সেখান থেকে বিশেষ বিমান পাঠিয়ে তাঁদের আনা যায় কি না, সেটি আমরা আলোচনা করছি।’

পোল্যান্ডের ভিসার বিষয়ে শাহরিয়ার আলম বলেন, ‘ইতিমধ্যে আমরা পোলিশ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলেছি। যেসব বাংলাদেশি প্রবেশ করবেন, তাঁদের যেন অন-অ্যারাইভাল ভিসা দেওয়া হয়। এ কাজে সহায়তা করার জন্য ইতালি ও জার্মানির বাংলাদেশ দূতাবাস থেকে কূটনীতিকদের পোল্যান্ডে পাঠানো হয়েছে।’

ইউক্রেন পরিস্থিতির কারণে বাংলাদেশে অর্থনীতির প্রভাব কী জানতে চাইলে শাহরিয়ার আলম বলেন, এখনই মন্তব্য করার সময় আসেনি। তবে এর কারণে জ্বালানিসহ অন্যান্য পণ্যের দাম বাড়বে। এর প্রভাব শুধু বাংলাদেশ নয়, অন্যান্য দেশের ওপরও পড়বে।

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র রাশিয়ার সহযোগিতায় নির্মিত হচ্ছে। এর ওপর কোনো প্রভাব পড়বে কি না, জানতে চাইলে শাহরিয়ার আলম বলেন, এর বাস্তবায়ন অনেক দূর এগিয়ে গেছে। এতে এর কোনো প্রভাব পড়বে বলে মনে হয় না।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন