বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

১৪ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের (এপিবিএন) অধিনায়ক ও পুলিশ সুপার নাঈমুল হক বলেন, ‘আইওএম পরিচালিত করোনার আইসোলেশন সেন্টারে আগুন লাগার খবর পেয়ে ওই ক্যাম্পের এপিবিএন পুলিশের পাশাপাশি স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় ১২ জন রোগীকে দ্রুত উদ্ধার করা হয়। ওই সেন্টারে ৭০টির মতো শয্যা ছিল। আমাদের লোকজনের পাশাপাশি উখিয়া, টেকনাফ ও কক্সবাজার ফায়ার সার্ভিসের পাঁচটি ইউনিটের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।’

default-image

অধিনায়ক ও পুলিশ সুপার নাঈমুল হক আরও বলেন, এপিবিএন পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয় জনতার সহযোগিতায় রাত সাড়ে আটটার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়েছে তবে আইসোলেশন সেন্টারটি পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন