default-image

আর্থিক প্রতিষ্ঠান ইন্টারন্যাশনাল লিজিং (আইএলএফএসএল) থেকে ঋণ নিয়ে খেলাপি হওয়া প্রশান্ত কুমার (পি কে) হালদারসহ ১২৯ ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে তলব করেছেন হাইকোর্ট। ঋণের অর্থ পরিশোধ বিষয়ে সুনির্দিষ্ট তারিখ উল্লেখসহ ব্যাখ্যা জানাতে আগামী ২৪ ও ২৫ মে তাঁদের আদালতে হাজির হতে বলা হয়েছে।

প্রায় সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকা আত্মসাৎ ও পাচারের অভিযোগ নিয়ে এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংক ও রিলায়েন্স ফাইন্যান্স লিমিটেডের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) পি কে হালদার দেশের বাইরে পলাতক। তলবের তালিকায় তাঁর সহযোগী হিসেবে পরিচিত উত্তম কুমার মিস্ত্রী, রামপ্রসাদ রায় ও সুব্রত দাসের নামও রয়েছে।

বিজ্ঞাপন

আইএলএফএসএলের পক্ষে করা এক আবেদনের শুনানি নিয়ে গত ১৬ মার্চ বিচারপতি মুহাম্মদ খুরশীদ আলম সরকারের একক হাইকোর্ট বেঞ্চ কারণ দর্শানোসহ এই আদেশ দেন। ওই আবেদনে আইএলএফএসএল থেকে ঋণ নিয়ে খেলাপি হওয়া ব্যক্তিদের আদালতে হাজির হতে নির্দেশনা চাওয়া হয়। সম্প্রতি আদেশের পূর্ণাঙ্গ অনুলিপি প্রকাশিত হয়েছে। আদালতে প্রতিষ্ঠানটির পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মাহফুজুর রহমান।

আজ বুধবার মাহফুজুর রহমান প্রথম আলোকে বলেন, পি কে হালদারসহ ঋণ খেলাপি হওয়া এমন ১২৯ ব্যক্তি ও সত্তার কাছের ইন্টারন্যাশনাল লিজিং প্রায় ১ হাজার ৮০০ কোটি টাকা পাবে। ১২৯ ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে পি কে হালদারসহ ১০০ জনকে ২৪ মে সকাল সাড়ে ১০টায় এবং বাকি ২৯ জনকে পরদিন সকাল সাড়ে ১০টায় আদালতে হাজির হতে বলা হয়েছে।

জনগণের অর্থ বা তহবিলের অপব্যবহার করায় ১২৯ ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে কার্যক্রম শুরু করতে কেন দুর্নীতি দমন কমিশনকে নির্দেশ দেওয়া হবে না—এ বিষয়ে সংশ্লিষ্টদের দুই সপ্তাহের মধ্যে কারণ দর্শাতেও বলেছেন হাইকোর্ট।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন