বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

নেহাল আহমেদ বলেন, ৩০ ডিসেম্বর সকাল ১০টায় রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ফলাফল প্রকাশ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। একই স্থানে আগামী শিক্ষাবর্ষের বিনা মূল্যে বই বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন হবে। গণভবন থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই দুটি কার্যক্রমের উদ্বোধন করবেন। এরপর শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি সেখানেই সংবাদ সম্মেলন করে ফলাফলের বিস্তারিত তুলে ধরবেন।

সাধারণত প্রতিবারই প্রধানমন্ত্রী আনুষ্ঠানিকভাবে ফলাফল প্রকাশের কার্যক্রম উদ্বোধন করেন। ঢাকা শিক্ষা বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মালদ্বীপ সফরের আগের সময় হিসাব করে ২৬, ২৭ ও ২৮ ডিসেম্বর কিংবা প্রধানমন্ত্রীর সুবিধামতো সময় ফলাফল প্রকাশের জন্য প্রস্তাব পাঠানো হয়েছিল। কিন্তু পরে প্রধানমন্ত্রীর মালদ্বীপ সফরের সময় বাড়ানো হয়। গতকাল সোমবার প্রধানমন্ত্রী দেশে ফিরেছেন। এ জন্য পরে ২৮ থেকে ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে ফলাফল প্রকাশের বিষয়টি আলোচনায় আসে। ৩০ ডিসেম্বর ফলাফল প্রকাশের বিষয়টি চূড়ান্ত হয় আজ।

তবে বিনা মূল্যের বই বিতরণের তারিখটি আগেই ঠিক হয়েছিল। একই দিনেই ফলাফল প্রকাশ হতে পারে বলেও আলোচনা চলছিল।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণের কারণে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে নির্ধারিত সময়ের সাড়ে আট মাস পর গত ১৪ নভেম্বর এসএসসি ও সমমান পরীক্ষা শুরু হয়। শেষ হয় ২৩ নভেম্বর।

এ বছর এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় মোট পরীক্ষার্থী ছিল প্রায় ২২ লাখ। গতবারের চেয়ে এবার পরীক্ষার্থী বেশি ছিল।

করোনার কারণে এবার ভিন্ন পরিস্থিতিতে ভিন্নভাবে অনুষ্ঠিত হয় এই পরীক্ষা। অন্যান্য বছরের মতো এবার সব বিষয়ের পরীক্ষা হয়নি।

শুধু গ্রুপভিত্তিক (বিজ্ঞান, মানবিক, ব্যবসায় শিক্ষা ইত্যাদি) তিনটি বিষয়ে সময় ও নম্বর কমিয়ে এই পরীক্ষা হয়।

এবার অন্য আবশ্যিক বিষয় ও চতুর্থ বিষয়ের পরীক্ষা হয়নি। এসব বিষয়ে জেএসসি ও সমমানের পরীক্ষার নম্বরের ভিত্তিতে ‘ম্যাপিং’ করে নম্বর দেওয়া হবে।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন