default-image

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ মোকাবিলায় স্বল্প, মাঝারি ও দীর্ঘমেয়াদি সমন্বিত জাতীয় পরিকল্পনা প্রণয়ন ও প্রকাশে পদক্ষেপ নিতে অনুরোধ জানিয়ে আইনি নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

মানবাধিকার সংগঠন ল অ্যান্ড লাইফ ফাউন্ডেশনের পক্ষে চার সচিব ও সংশ্লিষ্ট দুটি প্রতিষ্ঠান প্রধানের বরাবরে সংগঠনের নির্বাহী সভাপতি ও আইনজীবী মো. হুমায়ন কবির আজ শনিবার ওই নোটিশ পাঠান।

স্বাস্থ্যসচিব, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্য সচিব, মন্ত্রিপরিষদ সচিব, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক, পরিকল্পনাসচিব এবং রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের পরিচালক বরাবরে ই-মেইলে ওই নোটিশ পাঠানো হয়।

টিকা পাওয়ার উপযুক্ত সব নাগরিকের প্রতিষেধক নিশ্চিতে পর্যাপ্ত কোভিড-১৯-এর ভ্যাকসিন ক্রয়ে অবিলম্বে পদক্ষেপ নিতে অনুরোধ জানানো হয়েছে নোটিশে। এসব বিষয়ে নোটিশ পাওয়ার তিন দিনের মধ্যে পদক্ষেপ নিতে অনুরোধ করা হয়েছে। তা না হলে রিট দায়েরসহ প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে নোটিশে উল্লেখ করা হয়েছে।  

বিজ্ঞাপন

পরে হুমায়ন কবির প্রথম আলোকে বলেন, করোনাভাইরাস প্রতিনিয়ত ধরন পাল্টে নতুনরূপে আবির্ভূত হচ্ছে। করোনাভাইরাস শিগগিরই নির্মূল হচ্ছে না বলে বিভিন্ন গবেষণা এসেছে। করোনাভাইরাস আরও ১০-১৫ বছর স্থায়ী হতে পারে। যে কারণে এই ভাইরাস মোকাবিলায় দীর্ঘমেয়াদি সমন্বিত জাতীয় পরিকল্পনা প্রয়োজন। স্বাস্থ্য সুরক্ষা ও জীবনধারণের অধিকার প্রত্যেক মানুষের সংবিধানস্বীকৃত অধিকার। সবাইকে করোনার টিকা প্রদান সরকারের অন্যতম মৌলিক দায়িত্ব। প্রত্যেক নাগরিকের করোনার টিকা পাওয়ার অধিকার একটি মৌলিক অধিকার—এসব দিক তুলে ধরে ওই নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন