default-image

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার গুলশানের বাসভবন ‘ফিরোজায়’ স্টাফদের মধ্যে যাঁরা করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন, তাঁরা সবাই করোনামুক্ত হয়েছেন। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত খালেদা জিয়া হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন।


বিএনপির চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইং সদস্য শায়রুল কবির খান শুক্রবার রাতে মুঠোফোনে প্রথম আলোকে এ তথ্য জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘ম্যাডামের (খালেদা জিয়া) ব্যক্তিগত পরিচারিকা ফাতেমা ও রুপা এবং ব্যক্তিগত চালক জালালসহ আটজন করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন। আজ তাঁরা সবাই করোনামুক্ত হয়েছেন।’


১১ এপ্রিল খালেদা জিয়ার করোনাভাইরাস আক্রান্ত হওয়ার কথা জানায় বিএনপি। পরদিন খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসকেরা সাংবাদিকদের জানান, গুলশানের বাসভবন ফিরোজায় আরও আটজন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

বিজ্ঞাপন


২৫ এপ্রিল দ্বিতীয়বার খালেদা জিয়ার করোনা পরীক্ষার নমুনা জমা দেওয়ার পর আবারও পজিটিভ আসে। বর্তমানে তিনি রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। তাঁর চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষার অংশ হিসেবে হাসপাতালে ভর্তি হয়ে খালেদা জিয়াকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। ‌


এদিকে দ্বিতীয় দফায় করোনা নেগেটিভ না এলেও এভারকেয়ার হাসপাতালে নন কোভিড জোনে খালেদা জিয়াকে রাখা হয়েছে। এ প্রসঙ্গে তাঁর চিকিৎসকেরা বলছেন, করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর ইতিমধ্যে খালেদা জিয়ার দুই সপ্তাহ পার হয়েছে। বর্তমানে তাঁর করোনার কোনো উপসর্গ নেই। তাই নন কোভিড জোনে তাঁর চিকিৎসা চলছে।


খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসক দলের অন্যতম সদস্য এ জেড এম জাহিদ হোসেন শুক্রবার বিকেলে জানান, হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তাঁর (খালেদা জিয়া) স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য আগামী রবি ও সোমবার পর্যন্ত সময় লাগতে পারে। তাঁর শারীরিক অবস্থা এখন পর্যন্ত স্থিতিশীল আছে।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন