বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টা থেকে দুই ইঞ্জিনচালিত নৌযান চলাচলের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হয়।

আজ সকাল ৮টা থেকে এক ইঞ্জিনচালিত নৌযান চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হলো।

২৫ মে থেকে ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের কারণে নৌযান চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি হয়। ২৬ মে ভারতের ওডিশায় আঘাত হানে ঘূর্ণিঝড় ইয়াস।

বৈরী আবহাওয়ার কারণে ২৬ মে ভোর থেকে ঝোড়ো বাতাস বয়ে যাচ্ছিল। প্রবল বাতাসের কারণে পদ্মাসহ বিভিন্ন নদীতে বড় ঢেউয়ের সৃষ্টি হয়, সেই সঙ্গে তীব্র স্রোতও বয়ে যায়।

ইয়াস এর প্রভাবে দেশের উপকূলের অনেক এলাকায় বাঁধ ভেঙে গেছে। অনেক এলাকা জোয়ারের পানিতে প্লাবিত হয়েছে ।

আজ সকাল সাড়ে ৯টার দিকে শিমুলিয়া ঘাটের ট্রাফিক পুলিশ পরিদর্শক (টিআই) মো. জাকির হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, প্রায় দুই দিন ফেরি চলাচল বন্ধ থাকায় ঘাটে এসে অসংখ্য ছোট-বড় যানবাহন জড়ো হয়েছে। বর্তমানে প্রায় ৫৪০টি যানবাহন পারাপারের অপেক্ষায় আছে। এসব যানবাহনের মধ্যে মালবাহী ট্রাক ও কাভার্ড ভ্যানের সংখ্যা বেশি। এ ছাড়া ছোট গাড়ি ও বাস রয়েছে। ফেরি চলাচল স্বাভাবিক হওয়ায় যানবাহন পারাপার করা হচ্ছে

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন