বাংলাদেশ ঋণ নেওয়ার ক্ষেত্রে খুব সতর্ক এবং যাচাই-বাছাই করে দেখে লাভ হবে কি না, জানিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের সর্বমোট ঋণ অত্যন্ত অল্প এবং এর বেশির ভাগ আন্তর্জাতিক অর্থ সংস্থাগুলোর কাছ থেকে নেওয়া। বাকি যে দেশ সবচেয়ে বেশি ঋণ দিয়েছে, সেটি হচ্ছে জাপান। চীন থেকে অল্প পরিমাণ ঋণ নেওয়া হয়েছে এবং সেটি ৫ থেকে ৬ শতাংশ। সেটি নিয়ে সবার মাথাব্যথা। কিন্তু জাপানের কথা কেউ বলে না।’

চীনের ঋণ নিয়ে অর্থনীতিবিদদের নেতিবাচক মন্তব্যের বিষয়ে আব্দুল মোমেন বলেন, ‘হয়তো বিশেষ অভিসন্ধি আছে। হয়তো তারা যুক্তরাষ্ট্রকে খুশি করতে চায়।’

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, ‘২০১৬ সালে চীনের প্রেসিডেন্ট সি চিন পিং যখন ঢাকা সফর করেন, তখন আমরা অনেক অর্থের চুক্তি করেছিলাম। কিন্তু কয়টা হয়েছে, কারণ যখন আসলে হয়, তখন আমরা খুবই হিসাব-নিকাশ করে ঋণ নিয়ে থাকি।’

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন