বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মোট দুর্ঘটনার মধ্যে ১৬৭টি মোটরসাইকেলের, যা মোট দুর্ঘটনার ৪৪ শতাংশ। মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় ১৭৮ জন নিহত হয়েছেন, যা মোট মৃত্যুর ৪৩ শতাংশ।

ঢাকা বিভাগে সবচেয়ে বেশি দুর্ঘটনা ও প্রাণহানি ঘটেছে। এ বিভাগে ১০২টি দুর্ঘটনায় ১১৩ জন নিহত হয়েছেন। আর রাজধানী শহরে ১৫টি দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন ১৮ জন। সবচেয়ে কম সিলেট বিভাগে। এ বিভাগে ১৬টি দুর্ঘটনায় ১৯ জন নিহত হয়েছেন।

এসব দুর্ঘটনার জন্য ত্রুটিপূর্ণ যানবাহন, বেপরোয়া গতি, চালকদের বেপরোয়া মানসিকতা, অদক্ষতা ও শারীরিক-মানসিক অসুস্থতা, বেতন ও কর্মঘণ্টা নির্দিষ্ট না থাকা, মহাসড়কে স্বল্পগতির যানবাহন চলাচল, তরুণ ও যুবকদের বেপরোয়া মোটরসাইকেল চালানো, জনসাধারণের মধ্যে ট্রাফিক আইন না জানা ও না মানার প্রবণতা, দুর্বল ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা, বিআরটিএর সক্ষমতার ঘাটতি এবং ১০ গণপরিবহন খাতে চাঁদাবাজিকে দায়ী করা হয়েছে প্রতিবেদনে। সড়ক দুর্ঘটনা এড়াতে এসব সমস্যা সমাধানের সুপারিশ করা হয়েছে।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন