বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

গতকাল শনিবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়ন্ত্রণকক্ষের তথ্য অনুযায়ী, ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে ৩৩৬ জন ঢাকার বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। চলতি মাসে সারা দেশে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৭৬৭। আর চলতি বছরে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়েছেন মোট ১ হাজার ১৩৯ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের স্বাস্থ্য তথ্য ইউনিটের সহকারী পরিচালক চিকিৎসক মোহাম্মদ কামরুল কিবরিয়া স্বাক্ষরিত ওই বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্তদের বেশির ভাগ ঢাকার বাসিন্দা।

২০১৯ সালে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা আগের সব বছরের রেকর্ড ছাড়িয়েছিল। প্রথম আলোসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমের তথ্য অনুযায়ী, ২০১৯ সালে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে প্রায় ৩০০ জন প্রাণ হারান। আর সরকারি হিসাবে মৃতের সংখ্যা ১৭৯। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হিসাবে, ওই বছর সারা দেশে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছিলেন ১ লাখ ১ হাজার ৩৫৪ জন।

সাধারণত এপ্রিল থেকে অক্টোবর পর্যন্ত ডেঙ্গু মৌসুম হিসেবে ধরা হয়। তবে জুন থেকে সেপ্টেম্বর—এই চার মাস মূল মৌসুম। কয়েক দিনের থেমে থেমে হওয়া বৃষ্টি এডিস মশার বংশবিস্তারে প্রভাব ফেলছে। করোনা আর ডেঙ্গুর উপসর্গ কাছাকাছি হওয়ায় জ্বর হলে বেশি সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগনিয়ন্ত্রণ শাখার পরিচালক ও মুখপাত্র অধ্যাপক মো. নাজমুল ইসলাম বলেন, কয়েক দিন ধরে ডেঙ্গু রোগী বেশি পাওয়া যাচ্ছে। বাড়ির আশপাশ পরিষ্কার রাখতে এবং কোথাও যেন স্বচ্ছ পানি না জমে থাকে, সেটি নিশ্চিত করতে সবার প্রতি অনুরোধ জানান তিনি।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন