বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

হল সম্মেলন আয়োজনে দীর্ঘ সময় লাগার কারণ জানতে চাইলে সাদ্দাম হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, ‘বিশেষ করে করোনা মহামারির কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় আমাদের সাংগঠনিক কমিটি গঠনের প্রক্রিয়া বন্ধ ছিল। তাই হল কমিটি করতে দীর্ঘ সময় লেগেছে। আমরা আগে থেকেই বলে এসেছি যে বিশ্ববিদ্যালয় খোলার পর সাংগঠনিক কার্যক্রম শুরু হবে। মেধাবী, দক্ষ, আদর্শিক ও একুশ শতকের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় সক্ষম নেতৃত্ব নির্বাচনের প্রক্রিয়া শুরুর পথেই আমরা আছি।’

২০১৮ সালের ৩১ জুলাই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পান সনজিত ও সাদ্দাম। শুরু থেকেই ‘দ্রুততম সময়ের মধ্যে’ হল সম্মেলন আয়োজনের কথা বলে এলেও তা করতে সফল হননি তাঁরা। ব্যর্থতার পেছনে ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীরা নানা কারণের কথা বলে থাকেন। এগুলোর মধ্যে আছে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সঙ্গে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সমন্বয়হীনতা, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের শীর্ষ পদ থেকে রেজওয়ানুল হক চৌধুরী ও গোলাম রাব্বানীর আকস্মিক বিদায়, ডাকসু ও হল সংসদ নিয়ে ছাত্রলীগের ব্যস্ত থাকা ইত্যাদি।

আগামীকাল রোববার সকালে প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা ১৫ দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে বিদেশে যাচ্ছেন। সফরসঙ্গী হিসেবে থাকছেন ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি আল নাহিয়ান খান ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য এবং সনজিত ও সাদ্দাম। এ ছাড়া ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ শাখা ছাত্রলীগের চার শীর্ষ নেতাও সফরসঙ্গী হিসেবে থাকছেন। এই সফরের আগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সংগঠনকে ‘চাঙা’ করতে হল সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা করল ছাত্রলীগ।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন