বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গতকাল শনিবার তারেক মাসুদ ফিল্ম সোসাইটি প্রতিষ্ঠা উপলক্ষে ফরিদপুর শহরের কমলাপুরে হয় চলচ্চিত্রপ্রেমীদের মিলনমেলা। সম্মেলন থেকে সবার সম্মতিতে নির্ধারিত হয় সংসদের নাম, প্রণীত হয় গঠনতন্ত্র এবং গঠিত হয় আট সদস্যের প্রথম কার্যনির্বাহী পরিষদ।

বাংলাদেশের চলচ্চিত্রকে যে কয়জন নির্মাতা বিশ্বের কাছে পৌঁছে দিয়েছেন, তারেক মাসুদ তাঁদের মধ্যে অন্যতম। ১৯৫৬ সালে ফরিদপুরে জন্মগ্রহণকারী তারেক মাসুদ ১৯৮২ সালের শেষ দিকে বাংলাদেশ ফিল্ম আর্কাইভ থেকে ফিল্ম অ্যাপ্রিসিয়েশন কোর্স শেষ করে শুরু করেন তাঁর প্রথম প্রামাণ্যচিত্র নির্মাণের কাজ। এটি নির্মাণ করতে লেগেছিল সাত বছর। তাঁর মৃত্যুর ১১ বছর পর নিজের জেলায় গঠিত হলো তাঁর নামে চলচ্চিত্র সংসদ।

default-image

সভাপতি রেজাউল করিম বলেন, ‘যে যাত্রা শুরু হলো তাকে সাফল্যমণ্ডিত করতে হাঁটতে হবে অনেক দূর। তরুণপ্রাণ কর্মঠ চলচ্চিত্রপ্রেমীরা যুক্ত হওয়ায় আমরা আশাবাদী।’ আর মেহেদী হাসান বলেন, ফরিদপুরে চলচ্চিত্র সংসদ দীর্ঘদিন ধরে মুখ থুবড়ে আছে। তাই নতুন করে আন্দোলনকে চাঙা করতে যাত্রা শুরু করল তারেক মাসুদ ফিল্ম সোসাইটি।

default-image

তিন বছরের জন্য নির্বাচিত কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন সহসভাপতি লিয়াকত হিমু, সহসাধারণ সম্পাদক সুজিত হাসান শোভন, কোষাধ্যক্ষ মো. শরিফুল ইসলাম খান, সদস্যরা মো. তাসিনুল করিম প্রত্ন, মো. আসিফ খান তামিম ও তাওসিফ করিম প্রাচ্য। সম্মেলন শেষে প্রদর্শিত হয় মুক্তিযুদ্ধের ওপর নির্মিত তারেক মাসুদের শর্টফিল্ম ‘নরসুন্দর’।

মাটির ময়নাখ্যাত তারেক মাসুদ সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারান ২০১১ সালের ১৩ আগস্ট। মানিকগঞ্জের ঘিওর উপজেলায় মর্মান্তিক ওই সড়ক দুর্ঘটনায় একই সঙ্গে প্রাণ হারিয়েছিলেন সাংবাদিক মিশুক মুনির।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন