২০১৮-১৯ অর্থবছর থেকে প্রতি মাসে ৮০০ টাকা হারে ভাতা দেওয়া হয় এবং এনজিওর মাধ্যমে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। এ কর্মসূচির আওতায় সারা দেশে উপকারভোগীর সংখ্যা ৭ লাখ ৭০ হাজার। এখন দরিদ্র গর্ভবতী মা প্রথম ও দ্বিতীয় (সর্বোচ্চ দুজন) সন্তানের জন্য মাতৃত্বকালীন মাসিক ভাতা পান। এই কর্মসূচির আওতায় একজন মা ৩৬ মাস ৮০০ টাকা করে ভাতা পেয়ে থাকেন। প্রতি মাসে ভাতা দেওয়ার পাশাপাশি পুষ্টি, শিশুর মনোসামাজিক বিকাশ এবং বুদ্ধিবৃত্তিক বিকাশ বিষয়ে অনুষ্ঠিত উঠান বৈঠকে নিয়মিত অংশ নিচ্ছেন।

বৈঠকে প্রত্যেক সংসদ সদস্যের অনুকূলে ৫টি করে সেলাই মেশিন বরাদ্দের পাশাপাশি ৫টি করে কম্পিউটার বরাদ্দের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য মন্ত্রণালয়কে সুপারিশ করেছে সংসদীয় কমিটি।

সভায় গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলায় কর্মজীবী মহিলা হোস্টেল নির্মাণ এবং শিশু দিবাযত্নকেন্দ্র স্থাপন প্রকল্প সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য প্রকল্প পরিচালকের সঙ্গে আলোচনা করে দ্রুত বিদ্যুৎ বিল পরিশোধের প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার সুপারিশ করা হয়।

কমিটির সভাপতি মেহের আফরোজের সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটির সদস্য শবনম জাহান, লুৎফুন নেসা খান ও সাহাদারা মান্নান অংশ নেন।