বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

মেলার লেখক মঞ্চে আলোচনা করতে এসেছিলেন বিশিষ্ট অনুবাদক সেন্ট্রাল উইমেন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক আবদুস সেলিম। সাহিত্যের অনুবাদ প্রসঙ্গে তিনি বললেন, ‘আমাদের সাহিত্যের ভালো কোনো অনুবাদ হচ্ছে না। সীমিত এবং দুর্বল অনুবাদের কারণে বিশ্বে বাংলা সাহিত্য সম্পর্কে তেমন কোনো আগ্রহ বা পরিচিতি গড়ে ওঠেনি। এমনকি খোদ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরেরও পূর্ণাঙ্গ ভালো অনুবাদ হয়নি। আমাদের ভাষায় এবং জনমানসে আবেগ প্রবল। আবেগের সঠিক অনুবাদ কঠিন। তবে আমাদের ভাষার সম্ভাবনা রয়েছে। এই ভাষার সাহিত্যকে বিশ্বমানে উন্নত করা এবং তাকে বৈশ্বিক পরিমণ্ডলে পৌঁছে দিতে সংগ্রাম করতে হবে।’ এবারের মেলায় ধ্রুপদ প্রকাশনী থেকে এসেছে তাঁর লোরকা, কাফকা ও সেরভান্তেসের তিনটি নাটকের অনুবাদের বই নাট্যত্রয়ী

default-image

কথা হলো এশিয়া প্যাসিফিক বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগী অধ্যাপক শায়লা রহমানের সঙ্গে। তিনি বললেন, এবারের মেলায় বসার ব্যবস্থা তুলনামূলক কম। তারপরও খোলামেলা পরিসর হওয়ায় প্রচুর মানুষ মেলায় আসছেন। সবাই হয়তো বই কিনছেন না। কিন্তু হাতে তুলে দেখছেন, বইয়ের ভূমিকা বা ফ্লাপের সারসংক্ষেপ পড়ছেন, তাতে কিছু অন্তত জানছেন। এতে বই নিয়ে আগ্রহ সৃষ্টি হচ্ছে।

র‍্যামন পাবলিশার্সের প্রকাশক সৈয়দ রহমতউল্লাহ বললেন, ‘ছুটির দিনে বেচাকেনা ভালো হয়েছে। আমাদের দেশে সারা মাস ছাপা বই নিয়ে এই বিশাল আয়োজন এবং তাতে লাখ লাখ মানুষ যেভাবে সাড়া দিচ্ছেন, এর অনেক বড় তাৎপর্য রয়েছে।’

নতুন বই

গতকাল মেলার তথ্যকেন্দ্রে নতুন বইয়ের নাম জমা পড়েছে ২২০টি। প্রথমা প্রকাশন এনেছে আলী রীয়াজের রাজনৈতিক প্রবন্ধ ভয়ের সংস্কৃতি: বাংলাদেশ রাষ্ট্র, রাজনীতি সমাজ ও ব্যক্তিজীবন। প্রথমার স্টলে গতকাল ভালো চলেছে মুহাম্মদ হাবিবুর রহমানের কোরানশরিফ: সরল বঙ্গানুবাদ, মঈনুস সুলতানের ইথিওপিয়ার দানাকিল ডিপ্রেশনে, আনোয়ারা সৈয়দ হকের ল্যু সালোমে এবং নিৎসে, রিলকে ও ফ্রয়েড। কথাপ্রকাশ এনেছে আফসানা বেগমের উপন্যাস মুখোশের আড়ালে, বইপুস্তক এনেছে জাফরুল আহসানের কবিতা মুখোশ পরেছে মানুষ, সময় এনেছে মোস্তফা জব্বারের গবেষণা বাংলা ভাষার ডিজিটাল যাত্রা, মাহবুবুল হকের প্রবন্ধ নজরুলকে নিয়ে, কাব্যকথা এনেছে আসাদ চৌধুরীর গল্পগ্রন্থ গল্প থেকে গল্প, দেশজ প্রকাশন এনেছে আল মাহমুদের ছড়া মিলের খেলা, নাগরী এনেছে জামাল নজরুল ইসলামের বিজ্ঞানবিষয়ক বই দ্য আলটিমেট ফেইট অব দ্য ইউনিভার্স–এর অনুবাদ মহাবিশ্বের চূড়ান্ত পরিণতি। বইটি অনুবাদ করেছেন অনঙ্গভূষণ দাস। প্রত্যয় এনেছে সেলিনা হোসেনের উপন্যাস ঝর্ণাধারার সঙ্গীত, অনন্যা এনেছে সজল আশফাকের গল্প বিয়েবাসরীয়, পুঁথিনিলয় এনেছে ডা. প্রণব কুমার চৌধুরীর স্বাস্থ্যবিষয়ক করোনা ঝুঁকি ও শিশুস্বাস্থ্য এবং কাব্যগ্রন্থ স্কুল কী যে সুন্দর, ঐতিহ্য এনেছে রফিক হারিরির উপন্যাস কবিরাজনামা

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন