বিজ্ঞাপন

পরে আজ সকালে মেয়েকে বিষ খেয়ে বাড়ির সামনে পড়ে থাকতে দেখে তিনি চিৎকার–চেঁচামেচি করলে আশপাশের লোকজন ছুটে আসেন। পরে সবাই মিলে তাকে মদন হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।
মেয়েটির মা বলেন, তাঁর মেয়ে ধর্ষণের অপমান সইতে না পেরেই আত্মহত্যা করেছে। তিনি এ ঘটনার বিচার দাবি করেন।

মদন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক কাজী বুশরা আমীনা বলেন, হাসপাতালে আনার আগেই শিশুটির মৃত্যু হয়। কীটনাশক পান করায় তার মৃত্যু হয়েছে।

মদন থানার পরিদর্শক (তদন্ত) উজ্জ্বল কান্তি সরকার বলেন, বিষপানে এক শিশু আত্মহত্যা করেছে খবর পেয়ে সন্ধ্যায় তার মৃতদেহ থানায় এনে রাখা হয়েছে। শনিবার সকালে ময়নাতদন্তের জন্য নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হবে। এ ঘটনায় মারা যাওয়া শিশুটির মায়ের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে প্রতিবেশী এক কিশোরকে আটক করে থানায় আনা হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।

এ বিষয়ে পুলিশ সুপার মো. আকবর আলী মুন্সী রাত পৌনে নয়টার দিকে প্রথম আলোকে বলেন, বিষয়টি জানার পর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) এ কে এম মনিরুল ইসলামকে ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে। মেয়েটির মায়ের অভিযোগটি মামলায় রূপান্তরিত হবে।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন