বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

এবার প্রথমা থেকে প্রকাশিত হয়েছে তাঁর মনস্তাত্ত্বিক উপন্যাস ডাঙায় ডুবোজীবন। এ ছাড়া বিদ্যাপ্রকাশ থেকে এসেছে দেহতরীর মনমাঝি এবং সময় থেকে এসেছে কাছের তুমি দূরের তুমি। তিনি বললেন, মেলার এই নৈসর্গিক পরিবেশ মন ভরিয়ে দেয়। তবে বেড়ানোর পাশাপাশি বই কিনতে হবে। প্রত্যেকের ঘরে ঘরে একটি ব্যবহার উপযোগী পাঠাগার গড়ে তোলা খুব দরকার। শিক্ষিত মানুষের ড্রয়িংরুমে বই থাকবে না, এটা শুধু দুঃখজনকই নয়, লজ্জারও। বাড়িতে বই থাকলে শিশুরা বইয়ের সংস্পর্শে বড় হবে।

তাদের মনোজগৎ আলোকিত হবে। এই যে সামাজিকমাধ্যমে আসক্তি, টেলিভিশন সিরিজের আসক্তি—এগুলো মনে নেতিবাচক প্রভাব ফেলে। এই আসক্তি এড়ানোর সবচেয়ে ভালো ও কার্যকর উপায় বই পড়া। সবার প্রতি আহ্বান থাকবে—একটি–দুটি করে হলেও বই কিনুন।

default-image

বিদ্যাপ্রকাশের স্টল পড়েছে এবার মেলার একেবারে পূর্ব সীমার শেষ প্রান্তে। প্রকাশক মজিবর রহমান বললেন, এবার ভাষা আন্দোলনের ৭০ বছর পূর্ণ হলো। সে কারণে তাঁরা তাঁদের স্টলের একটি অংশে একটি স্টুডিওর মতো ব্যবস্থা করেছেন। সেখান থেকে প্রতিদিন ফেসবুক লাইভে লেখক, প্রকাশক, আগ্রহী গ্রন্থানুরাগীরা এসে আলোচনা করছেন। বই, প্রকাশনা, মেলার সার্বিক বিষয় নিয়ে খোলামেলা আলোচনা করছেন। এই আলোচনাগুলো বিদ্যাপ্রকাশের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের গ্রুপেও পাওয়া যাবে।

মেলার পরিবেশ সম্পর্কে তিনি বিশেষ কিছু বলতে চাননি। তবে বেলা দুইটায় মেলা খুললেও বিকেল পাঁচটা থেকে বিদ্যুৎ সরবরাহ দেওয়া হচ্ছে। এখন আবহাওয়া ক্রমেই গরম হয়ে উঠছে। দুপুরের দিকে বিদ্যুৎ না থাকায় সমস্যা হচ্ছে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

নতুন বই

গতকাল তথ্যকেন্দ্রে নতুন বইয়ের নাম জমা পড়েছে ১২২টি। প্রথমা থেকে এসেছে মোহিত কামালের উপন্যাস ডাঙায় ডুবোজীবন, রাহিতুল ইসলামের উপন্যাস কল সেন্টারের অপরাজিতা। অন্য বইগুলোর মধ্যে বিভাস থেকে এসেছে মহাদেব সাহার কবিতা সুন্দর, তোমারই হাতে তুলে দেব সব। আগামী থেকে এসেছে সাখাওয়াত টিপুর কবিতা স্নায়ুযুদ্ধ, স্বপ্ন-৭১’ থেকে এসেছে ডানা মির্জার গল্প দ্যাট ফিফটিন মিনিটস, কথাপ্রকাশ এনেছে প্রশান্ত মৃধার উপন্যাস বাঁকা জলের খেলা, সদর প্রকাশনী এনেছে তপুব্রত ভট্টাচার্যের স্মৃতিকথা মুক্তিযুদ্ধ ও আমি, সৃজনী এনেছে রফিকুর রশীদের মুক্তিযুদ্ধের কিশোর উপন্যাস

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন