গণমাধ্যমের খবরের বরাত দিয়ে আদেশনামায় বলা হয়, গত শুক্রবার সকালে উপজেলার নড়াগাতী থানার বড়দিয়া বাজারে হাজী খান রওশন আলী হাসপাতাল অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টার নামের ক্লিনিকে সিজারিয়ান অস্ত্রোপচার করতে গিয়ে গর্ভজাত সন্তানসহ শিউলী বেগম (২৫) মারা যান। নিবন্ধনহীন ওই ক্লিনিকে সার্বক্ষণিক চিকিৎসক থাকেন না। তারপরও ১৫ হাজার টাকা চুক্তিতে এই অস্ত্রোপচার করতে গিয়ে প্রসূতির মৃত্যু হয়। আগেও সেখানে এ ধরনের ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

default-image

গর্ভজাত সন্তানসহ শিউলীর মৃত্যুর পর সাড়ে তিন লাখ টাকায় তাঁর পরিবারের সঙ্গে বিষয়টির দফারফা করেছে ক্লিনিকের মালিকপক্ষ। এ ঘটনায় উদ্বেগ জানিয়েছে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন। ঘটনার পুঙ্খানুপুঙ্খ তদন্ত করে দায়ী ব্যক্তি ও ক্লিনিকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার লক্ষ্যে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে আগামী ১৬ জুনের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে বলেছে কমিশন।

শিউলী বেগম কালিয়া উপজেলার পেচী ডুমুরিয়া গ্রামের আকবর হোসেন মোল্লার মেয়ে। তাঁর স্বামী গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার পশ্চিম শুকতাইল গ্রামের ইজিবাইকচালক জিন্নাত আলী। তাঁদের চার বছর বয়সী একটি মেয়ে রয়েছে।

ঘটনার বিষয়ে জিন্নাত আলী গতকাল জানিয়েছিলেন, ওই ক্লিনিকে তাঁর স্ত্রীকে সিজারিয়ান অপারেশন করাতে শুক্রবার সকাল ৯টার দিকে ভর্তি করেন। এর আধা ঘণ্টার মধ্যে তাঁকে অস্ত্রোপচারকক্ষে নেওয়া হয়। একজন চিকিৎসক অস্ত্রোপচার করতে সেখানে ঢোকেন। প্রায় এক ঘণ্টা পর ওই ক্লিনিকের সামনে একটি অ্যাম্বুলেন্স আসে। ক্লিনিকের পাঁচ–ছয়জন কর্মী শিউলীকে অ্যাম্বুলেন্সে তুলতে যান। তাঁরা বলতে থাকেন, রোগীর রক্তচাপ কমে গেছে, খুলনায় নিতে হবে। তখন রোগীর স্বজনেরা উত্তেজিত হন। এ অবস্থায় রোগীকে ফেলে ক্লিনিকের প্রধান ফটক আটকে দেন কর্মীরা। একজন চিকিৎসক দ্রুত বের হয়ে ক্লিনিক থেকে চলে যান। পেছনের দরজা দিয়ে অন্যরা পালিয়ে যান। এ সময় শিউলীকে মৃত অবস্থায় পাওয়া যায়। গর্ভের সন্তানটি তাঁর পেটের মধ্যেই আছে।

ক্লিনিকের মালিকপক্ষের সঙ্গে সাড়ে তিন লাখ টাকায় আপসের কথা স্বীকার করে জিন্নাত আলী প্রথম আলোকে বলেছিলেন, ‘আমার চার বছরের একটি মেয়ে আছে। তার ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে সাড়ে তিন লাখ টাকায় বিষয়টি মীমাংসা হয়েছে।’

এদিকে ঘটনা তদন্তে শনিবার কালিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা কাজল মল্লিককে প্রধান করে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছেন নড়াইলের সিভিল সার্জন। ওই কমিটির পাঁচ দিনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়ার কথা রয়েছে।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন