বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নেজাম উদ্দিন আজ সকালে প্রথম আলোকে বলেন, তাঁরা জানতে পেরেছেন, আরিফ ঢাকা থেকে কক্সবাজারে গিয়েছিলেন। সেখান থেকে চট্টগ্রামে আসেন। গতকাল সোমবার রাতে তিনি রেডিসন ব্লু হোটেলে খাবার খেতে গিয়েছিলেন। তবে তিনি সব খাবার খাননি। কিছু খাবার প্লেটে রেখে দিয়েছিলেন। একপর্যায়ে হোটেলের ২০ তলা থেকে লাফ দেন। লাফ দিয়ে তিনি ৬ তলায় পড়েন।

পুলিশ জানায়, ঘটনার পর রাতেই আরিফকে উদ্ধার করা হয়। তাঁকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসকেরা।

ওসি নেজাম বলেন, হোটেলে থাকা দুই বিদেশিসহ একাধিক প্রত্যক্ষদর্শীর সঙ্গে পুলিশ কথা বলেছে। পুলিশ নিশ্চিত হয়েছে, আরিফকে কেউ ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয়নি। তিনি নিজ থেকেই লাফ দিয়েছেন।

ময়নাতদন্তের জন্য আরিফের লাশ চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের মর্গে রাখা হয়েছে।

আরিফ কী কারণে হোটেলের ২০ তলা থেকে লাফ দিয়েছেন, তা তদন্তে বেরিয়ে আসবে বলে জানায় কোতোয়ালি থানা-পুলিশ।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন