নাইমুলের মৃত্যু

প্রথম আলো সম্পাদকসহ ১০ জনের নামে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি

বিজ্ঞাপন
default-image

রেসিডেনসিয়াল মডেল কলেজের নবম শ্রেণির ছাত্র নাইমুল আবরারের অবহেলাজনিত মৃত্যুর অভিযোগে করা মামলায় প্রথম আলো সম্পাদক মতিউর রহমানসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত। গতকাল বৃহস্পতিবার ঢাকার অ্যাডিশনাল চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মো. কায়সারুল ইসলাম এ আদেশ দেন।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, এ আদেশ দেওয়ার পর ১০ জনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানার কপি বিভিন্ন থানায় পাঠানো হয়েছে। আগামী ২৪ ফেব্রুয়ারি মামলার পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য করা হয়েছে।

গতকাল দুপুরে এই মামলায় মোহাম্মদপুর থানা-পুলিশ প্রথম আলো সম্পাদকসহ ১০ জনের নামে আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়। এরপর বাদীপক্ষের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আদালত ১০ জনের নামে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির আদেশ দেন। যাঁদের নামে পরোয়ানা দেওয়ার আদেশ হয়েছে তাঁরা হলেন: প্রথম আলো সম্পাদক মতিউর রহমান, কিশোর আলো সম্পাদক আনিসুল হক, প্রথম আলোর হেড অব ইভেন্ট অ্যান্ড অ্যাকটিভেশন কবির বকুল, নির্বাহী শুভাশীষ প্রামাণিক, নির্বাহী শাহপরাণ তুষার, কিশোর আলোর জ্যেষ্ঠ সহসম্পাদক মহিতুল আলম, ডেকোরেশন ও জেনারেটর সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানের জসীম উদ্দিন, মোশাররফ হোসেন, সুজন ও কামরুল হাওলাদার।

গত ৬ নভেম্বর নাইমুল আবরারের বাবা মজিবুর রহমান বাদী হয়ে পেনাল কোডের ৩০৪ (এ ) ধারায় অবহেলাজনিত মৃত্যুর অভিযোগ করে ঢাকার আদালতে মামলা করেন। আদালত সেদিন নালিশি মামলাটি আমলে নিয়ে মোহাম্মদপুর থানাকে তদন্ত করে প্রতিবেদন জমা দেওয়ার নির্দেশ দেন।

মামলায় মজিবুর রহমান অভিযোগ করেছেন, ১ নভেম্বর তাঁর ছেলে নাইমুল আবরার রেসিডেনসিয়াল মডেল কলেজে কিশোরদের ম্যাগাজিন কিশোর আলোর বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠানে যায়। অনুষ্ঠান চলাকালে নাইমুল আবরার মঞ্চের পেছনে আনুমানিক বেলা সাড়ে ৪টায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে অজ্ঞান হয়ে পড়ে। অনুষ্ঠান পরিচালনার জন্য যে বিদ্যুৎ-সংযোগ স্থাপন করা হয়, সেখানে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয় আবরার।

প্রথম আলো সম্পাদক মতিউর রহমানসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির খবরটি গতকাল বৃহস্পতিবার প্রকাশ করেছে বিভিন্ন দেশের গণমাধ্যম।

বার্তা সংস্থা এএফপির খবরের শিরোনাম ‘বাংলাদেশে শীর্ষ সম্পাদকের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা’। তাদের খবরে বলা হয়, মতিউর রহমান বাংলাদেশের বাক্‌ স্বাধীনতার পক্ষে কথা বলা অন্যতম ব্যক্তি। মতিউর রহমানের বিরুদ্ধে এর আগে অন্তত ৫৫টি মামলা হয়েছে। এএফপির এই খবরই প্রকাশ করেছে ভারতের ইংরেজি দৈনিক বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড ও সৌদি আরবে ইংরেজি ভাষার অন্যতম দৈনিক সৌদি গেজেট। মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক আল খালিজ টুডেও একই খবর প্রকাশ করে। বিবিসির বাংলা বিভাগও গ্রেপ্তারি পরোয়ানার খবরটি তাদের অনলাইন ও রেডিওতে প্রচার করে।

বার্তা সংস্থা এপির খবর নিজেদের অনলাইনে দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের প্রভাবশালী পত্রিকা ওয়াশিংটন পোস্ট, নিউইয়র্ক টাইমস ও ওয়াশিংটন টাইমস। এতে বলা হয়, একটি অনুষ্ঠানে বিদ্যুতায়িত হয়ে স্কুলছাত্র নাইমুল আবরারের মৃত্যুর ঘটনায় বাংলাদেশের প্রখ্যাত সম্পাদক মতিউর রহমানসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত। পত্রিকা তিনটির খবরে বলা হয়, প্রথম আলো বাংলাদেশের একটি প্রভাবশালী পত্রিকা এবং দেশের ক্রমবর্ধমান মধ্যবিত্ত শ্রেণির কাছে পত্রিকাটির ব্যাপক পাঠকপ্রিয়তা রয়েছে। এপির ওই খবরই প্রকাশ করেছে কানাডার টরন্টোভিত্তিক নিউজপোর্টাল সিটিনিউজ ও ভাঙ্কুভারভিত্তিক রেডিও চ্যানেল নিউজ ১১৩০।

‘বাংলাদেশে সংবাদপত্র সম্পাদকের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা’ শিরোনামে খবরটি প্রকাশ করেছে ভারতের আসামের সংবাদমাধ্যম নর্থইস্ট নাউ।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন