default-image

ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক (ডিসি) অতুল সরকারকে ‘দাঁতভাঙা জবাব’ দেওয়ার হুমকি দিয়েছেন স্বতন্ত্র সাংসদ মুজিবর রহমান চৌধুরী ওরফে নিক্সন। চরভদ্রাসনের ইউএনওর ফোনে ফোন করে গালিগালাজ করেছেন ভাঙা উপজেলার এসিল্যান্ডকে। চরভদ্রাসন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে উপনির্বাচনকে কেন্দ্র করে গত শনিবার এই দুটি ঘটনা ঘটে।

এই দুটি ঘটনার ভিডিও এবং অডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও ছড়িয়ে পড়েছে। বিসিএস প্রশাসন ক্যাডারের কর্মকর্তাদের সংগঠন বাংলাদেশ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের ফরিদপুর জেলা শাখা গতকাল রোববার সভা করে এই ঘটনার প্রতিকার চেয়েছে। জেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভায় এই ঘটনায় নিন্দা প্রস্তাব আনা হয়। এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
বিষয়টি শিষ্টাচারবহির্ভূত। একজন সাংসদের কাছ থেকে এ জাতীয় বক্তব্য প্রত্যাশিত নয়।
অতুল সরকার, ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক

নির্বাচনের আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে এক ব্যক্তিকে আটক করার জের ধরে সাংসদ এসিল্যান্ডকে গালিগালাজ করেন বলে অভিযোগ রয়েছে। তবে এ বিষয়ে সাংসদ মুজিবর রহমান চৌধুরী প্রথম আলোকে বলেন, ভাঙার এসিল্যান্ড তাঁর সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেন। এতে তিনি খুব ক্ষুব্ধ হন। বিষয়টি ইউএনও কে জানান এবং ইউএনও ফোন করে জানান, এসিল্যান্ড ফোন ধরছেন না। তখন এসিল্যান্ড সম্পর্কে ‘বকাবাজি’ করেন। জেলা প্রশাসক সম্পর্কে বক্তব্যের বিষয়ে তিনি বলেন, সারা দিনের ঘটনা এবং তাঁর অন্তত ১০ জন নেতা-কর্মীকে গ্রেপ্তার, কাউকে জরিমানা করায় জনগণের মধ্যে ক্ষোভ ছিল। সেই ক্ষোভপ্রকাশ যাতে অন্যরকম না হয় সে জন্য ডিসি সম্পর্কে এভাবে কথা বলেছেন।

চেয়ারম্যান পদের ওই উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী কাওসার হোসেন (নৌকা) নির্বাচিত হন। তাঁকে সমর্থন দেন সাংসদ মজিবুর রহমান চৌধুরী।

সাংসদের বক্তব্যের বিষয়ে জেলা প্রশাসক অতুল সরকার বলেন, বিষয়টি শিষ্টাচারবহির্ভূত। একজন সাংসদের কাছ থেকে এ জাতীয় বক্তব্য প্রত্যাশিত নয়।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0