বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আদালতে মানিকের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মোহাম্মদ হোসেন। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানিতে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আমিন উদ্দিন মানিক।

এজাহার অনুসারে মানি লন্ডারিংয়ের অপরাধে মানিকসহ তিনজনের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাতনামা কয়েকজনকে আসামি করে সিআইডির পুলিশ পরিদর্শক মো. শাহীনুল ইসলাম ওই মামলা করেন। গত ১৯ সেপ্টেম্বর বাড্ডা থানায় মামলাটি করা হয়। মামলায় বলা হয়, তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি ব্যবহার করে আসামিরা অবৈধভাবে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি ও বিভিন্ন সরকারি প্রতিষ্ঠানে নিয়োগের মাধ্যমে তাঁদের কাছ থেকে অর্থ আদায় করতেন। সেই অর্থ পাচারে তাঁদের জড়িত থাকার প্রমাণও পাওয়া গেছে।

রাষ্ট্রপক্ষ জানায়, মানিকের নামে একটি গাড়ির মূল্য আনুমানিক ৪৮ লাখ টাকা ও রাজশাহীতে একটি ডুপ্লেক্স বাড়ি আছে। ছদ্মনামে বেরা ট্রেডার্স নামে হিসাব খুলে বিপুল পরিমাণ টাকা লেনদেন করেছেন তিনি। ৯টি সঞ্চয় হিসাবে ৪ কোটি ৮ লাখ ৫৬ হাজার ৩০০ টাকার তথ্য পাওয়া যায় বলে এজাহারে এসেছে।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন